বাজেট: ১০ খাতে বরাদ্দ বেশী

0
266

দেশইনফো প্রতিবেদক: জাতীয় নির্বাচনের বছর এটি। কিছুদিনের মধ্যেই ঘোষণা করা হবে আগামী অর্থবছরের বাজেট। এ বছর বাজেটের মোট ব্যয়ের আকার হবে ৪ লাখ ৬৮ হাজার ২০০ কোটি টাকা। সম্ভাব্য আয় হচ্ছে ৩ লাখ ৪০ হাজার ৭৭৫ কোটি টাকা। ঘাটতি বাজেটের পরিমাণ দাঁড়াবে ১ লাখ ২৭ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা। ভোটার সম্পৃক্ততা বেশি এমন দশটি মন্ত্রণালয়কে গুরুত্ব দিয়ে সর্বোচ্চ অর্থ বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। নতুন বাজেটের সম্ভাব্য ব্যয়ের প্রায় অর্ধেকই রাখা হচ্ছে এ ১০ মন্ত্রণালয়ের জন্য। আর এ দশ খাত হলো:

প্রতিরক্ষা খাত
স্থানীয় সরকার বিভাগ
সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ
শিক্ষা
বিদ্যুৎ খাত
মানবসম্পদ উন্নয়ন খাত
জননিরাপত্তা বিভাগ
স্বাস্থ্য ও সেবা বিভাগ
রেলপথ মন্ত্রণালয়
কৃষিখাত
কর্মসংস্থান

অর্থ বরাদ্দ প্রসঙ্গে সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বরাদ্দের অগ্রাধিকার তালিকায় আছে স্থানীয় সরকার ও পরিবহন, শিক্ষা ও বিদ্যুৎ খাত। বরাদ্দ ছাড়া বাজেটে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে মানবসম্পদ উন্নয়ন খাতকে। তিনি আরও বলেন, আগামী বাজেট নির্বাচনী বাজেট নয়। এটি একটি স্বাভাবিক বাজেট হবে।

শীর্ষ বরাদ্দের দশ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে চতুর্থ অবস্থানে আছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ। এ বিভাগে সম্ভাব্য বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে ২৩ হাজার ৪৭৭ কোটি টাকা। চলতি বছরে বরাদ্দ আছে প্রায় ২৩ হাজার ১৪৮ কোটি টাকা। নতুন বাজেটে এ বিভাগে বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে ৩২৯ কোটি টাকা।

শীর্ষ বরাদ্দের পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগ। এ বিভাগে আগামী অর্থবছরের বাজেটে সম্ভাব্য বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে প্রায় ২২ হাজার ৯৩৬ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে ১৮ হাজার ৮৯৪ কোটি টাকা বরাদ্দ আছে। ওই হিসাবে বিদ্যুৎ খাতে বেশি বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৪ হাজার ৪২ কোটি টাকা।

এছাড়া শীর্ষ বরাদ্দের ষষ্ঠ তালিকায় আছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। আসন্ন বাজেটে এ মন্ত্রণালয়ের সম্ভাব্য বরাদ্দের পরিমাণ ২২ হাজার ৪৮৮ কোটি টাকা। চলতি বাজেটে বরাদ্দের পরিমাণ ২২ হাজার ২৩ কোটি টাকা। এ হিসাবে বরাদ্দ বাড়ছে ৪৬৫ কোটি টাকা।

এদিকে নির্বাচনের বছরে জননিরাপত্তা বিভাগের ব্যয় স্বাভাবিকভাবেই বাড়বে। এ বিভাগের মাধ্যমে নির্বাচন প্রস্তুতি থাকবে। যে কারণে নতুন বাজেটে জননিরাপত্তা খাতে বরাদ্দ বাড়ছে প্রায় ৩ হাজার ৪২ কোটি টাকা।

বরাদ্দের সপ্তম অবস্থানে আছে জননিরাপত্তা বিভাগ। নতুন বাজেটে সম্ভাব্য বরাদ্দের পরিমাণ হচ্ছে প্রায় ২১ হাজার ৩৩১ টাকা। চলতি অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ আছে প্রায় ১৮ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা।

শীর্ষ বরাদ্দের অষ্টম অবস্থানে আছে স্বাস্থ্য ও সেবা বিভাগ। এ বিভাগে নতুন বাজেটে সম্ভাব্য বরাদ্দ বাড়ানো হচ্ছে ১ হাজার ৯৬৩ কোটি টাকা। স্বাস্থ্য ও সেবা বিভাগে সম্ভাব্য বরাদ্দ থাকছে ১৮ হাজার ১৬৬ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে এ বিভাগে বরাদ্দ আছে ১৬ হাজার ২০৩ কোটি টাকা।

এদিকে বরাদ্দের শীর্ষে নবম অবস্থানে রেলপথ মন্ত্রণালয় থাকলেও আগামী অর্থবছরে এর বরাদ্দ কমছে ১ হাজার ৪৯৭ কোটি টাকা। এটি কমছে চলতি বাজেটের তুলনায়।

আগামী বাজেটে কৃষিখাতে ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকা। ফলে উন্নয়ন ও অনুন্নয়ন ব্যয় মিলে কৃষি মন্ত্রণালয়ে সম্ভাব্য বরাদ্দের পরিমাণ প্রায় ১৩ হাজার ৯১৫ কোটি টাকা। যা চলতি বাজেটে ১৩ হাজার ৬০৪ কোটি টাকা। এ হিসাবে এ খাতে বরাদ্দ বাড়ছে ৩১১ কোটি টাকা।

আগামী বাজেটে জনগণ যাতে সন্তুষ্ট থাকে সে ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি এবং বিনিয়োগ বাড়াতে থাকছে পদক্ষেপ। বরাদ্দের ক্ষেত্রে বিগত সময়ে যারা অর্থ ব্যয় ভালোভাবে করতে সক্ষম হয়েছে তাদের বেশি দেয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here