৩ সিটিতে একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে ২০ দলীয় জোট: বিএনপি 

0
159
আগামী ২০ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য রাজশাহী, সিলেট, বরিশালে সিটি নির্বাচনে ২০ দলীয় জোট একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে সম্মত হয়েছে বলে জানিয়েছেন জোটের সমন্বয়ক ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।
তিনি বলেন, আজকের বৈঠকে জোটের নেতারা একক প্রার্থীর পক্ষে সম্মলিতভাবে কাজ করতে সম্মত হয়েছে। তিন সিটিতে ২০ দলীয় জোটের একজন করে প্রার্থী থাকবে। এবং সেই মেয়র প্রার্থী জন্য সবাই একযোগে কাজ করবে।
বুধবার(৪ জুলাই) বিকেলে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
সিলেটে জামায়াতের প্রার্থীকে ২০ দলীয় জোট সমর্থন দিবে কিনা জানতে চাইলে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, এখনও প্রার্থীতা প্রত্যাহারের সময় শেষ হয়ে যায়নি। আমরা একজন প্রার্থীর জন্য কাজ করবো। সিলেটের জামায়াতের প্রার্থীকে সমর্থন দিবো কিনা সেটা চূড়ান্ত হলে জানতে পারবেন। তবে সিলেটে বিএনপি যে প্রার্থী দিয়েছে ২০ দলীয় জোট সেটা সমর্থন করেছে।
জামায়াত যদি প্রার্থীতা প্রত্যহার না করে সে ক্ষেত্রে বিএনপির প্রার্থী কি নির্বাচনে লড়বেন এমন প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা আগেই বলেছি ৩ সিটিতে ২০ দল একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে। এখনাে আলাদা কোনো প্রার্থী থাকবে না।
নজরুল ইসলাম খান আরও বলেন, এটা নিয়ে জামায়তের সঙ্গে কোনো টানাপোড়ন কাজ করবে না। জামায়াত ২০ দলের একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার বিষয়ে আজকের বৈঠকে সম্মত হয়েছেন।
তিনি বলেন, আজকের বৈঠকে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বিএনপির দৃঢ অবস্থানের সাথে একমত হয়েছে। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে তার সুচিকিৎসার দাবি জানিয়েছে। এছাড়াও তার জামিন নিয়ে সরকার যে ছলচাতুরী করছে তার প্রতিবাদ জানিয়েছে ২০ দলীয় জোট।
গাজীপুর ও খুলনা সিটি নির্ববাচন সুষ্ঠু হয়নি  দাবি করে নজরুল ইসলাম খান বলেম, ফলে ২০ দলীয় জোট সেই নির্বাচন প্রত্যাখান করেছে।
নজরুল ইসলাম খান বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে সরকারের তামাশা ও আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা, গ্রেপ্তার, ও গুম করার প্রতিবাদ জানিয়েছে বৈঠকে উপস্থিত জোটের নেতারা। আন্দোলন চলাকালে  গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি ও তাদের ন্যায দাবি মেনে  নেওয়ার আহ্বান করছি আমরা। এইকসঙ্গে আমরা জোটের পক্ষ থেকে প্রেসক্লাবে এমপিও ভুক্তির দাবীতে আন্দোলনরত শিক্ষকদের দাবির প্রতি সমর্থন জানাই।
জাতিসংঘের মহাসচিবেরর সঙ্গে বিএনপির কোন বৈঠক হয়নি উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, তবে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে জাতিসংঘের মহাসচিব কর্নসান আছেন, এটা তারা নিজেরাই জানিয়েছেন। তবে এখনও  জাতীয় নির্বাচনের ৫ মাস সময় বাকি আছে বলেও জানান মির্জা ফখরুল।
এর আগে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের জরুরি বৈঠক শুরু হয় বিকেল ৪ টায়।
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আবদুল হালিম, জাতীয় পার্টি (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, বিজেপি চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিভ রহমান পার্থ,বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীকপ্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here