আপনার প্রতি আমাদের সম্মিলিত ঘৃনা

0
49

রেজাউল করিম: আপনি কি অনুতপ্ত? আপনি কি আপনার পরিবার, স্বজন, আত্মীয়দের কাছে আপনার মুখ দেখাতে পারছেন? একটি ছোট্ট শিশু রাইফা- প্রধানতঃ আপনার অবহেলাতেই মারা গেলো। বেসরকারি হাসপাতালে একজন রোগি দেখার জন্য আপনি ২২০০ টাকা ভিজিট নেন। আপনি জানেননা যে রোগিটি আপনাকে ২২০০ টাকা ভিজিট দিচ্ছেন তিনি কতো কষ্ট করে এই টাকা আয় করেন।নিজের স্বজনকে সুস্থ করার জন্য অনেকে ধার ভিক্ষাও করেও আপনাকে টাকা দেন। কিন্তু আপনি সেই টাকা নিয়ে রোগিকে কি যথাযথ চিকিৎসাটুকু দিচ্ছেন।

রোগিকে একটু ভালো করে দেখেন না। জুনিয়র ডাক্তারদের যথাযথ পরামর্শ দেন না। আপনার বিবেক কি দংশন করেনা বিধান বাবু? জুনিয়র ডাক্তাররাতো আপনার কাছ থেকেই শেখার কথা। মুলতঃ প্রধানতঃ আপনার অবহেলাতেই রাইফা নামের আড়াই বছর বয়সী আমাদের কন্যাটি মারা গেলো। সেই দায়ে আরও দুজন জুনিয়র চিকিৎসক অভিযুক্ত হলো।

দুজন সম্ভাবনাময় চিকিৎসকের ক্যারিয়ার শুরুতেই হোঁচট খেলো। কিন্তু আপনি যদি ২২০০ টাকা ফি হালাল করে নিতেন। যদি শিশুটিকে একটু দেখে সঠিক পরামর্শটুকু দিতেন তাহলে একটি ছোট্ট নিঃষ্পাপ শিশুর জীবন বেঁচে যেতো। নাহ.. আপনি তা করেননি। করবেন কেনো। আপনি তো বিশেষজ্ঞ। আপনার কাছে ২২০০ টাকাই মুখ্য। আপনার তো বিবেক বোধ নেই।

আপনার এই অর্থলিপ্সার কারনে আজ চট্টগ্রামের চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। হাজার হাজার ভালো চিকিৎসক রয়েছেন যারা বিনা টাকায় সাধারণ মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তারাও আজ গালি শুনছেন অপমানিত হচ্ছেন আপনার কারনেই তো?

আপনি কি লজ্জিত? অনুতপ্ত বিধান বাবু। আপনি কি ক্ষমা চাইবেন? আপনি কি আপনার পরিবার, স্বজন, আত্মীয় কিংবা আপনার অন্যান্য রোগিদের কাছে কি মুখ দেখাতে পারছেন? পারবেনই তো। পারবেননা কেনো। যার ভেতর মানবতা বোধ, মানবিকতা বোধ নেই- কে মরলো কে বাঁচলো তাতে কি এসে। তার কাছে তো অর্থই মুখ্য। হুম।

আপনার কাছে অর্থই মুখ্য। আপনি বেসরকারী হাসপাতালে অনকলে ২২০০ টাকা ভিজিট নিবেন। চেম্বারে মিনিটে ২জন রোগি দেখে মাথাপিছু ৭০০ টাকা করে গুণবেন। দিন শেষে কিংবা গভীর রাতে টাকার বস্তা কাঁধে নিয়ে বাড়ি ফিরবেন। পরদিন আবার বেরুবেন আরেক বস্তা টাকার জন্য। এই তো আপনার জীবন, তাই না।আমরা জানি শিশু রাইফার মৃত্যুও আপনার ভেতর কোন মানবিকতা বোধ জাগাবে না। ক’দিনের মধ্যেই মানুষ সব ভুলে যাবে। আপনার এমন অর্থলিপ্সার কাছে আরও অনেক শিশু মরে যাবে. আমরা কেউ জানবোও না।

আপনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার। আপনার বিরুদ্ধে কেউ কোন ব্যবস্থা নিতে পারবে না। কিন্তু আপনার প্রতি আমরা সম্মিলিত ঘৃনা তো জানাতে পারি।

ঘৃনা জানাচ্ছি ডাঃ বিধান রায় চৌধুরী আপনার প্রতি। ঘৃনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here