গ্রুপ অব ফাইভ হানড্রেড: আমরা সবাই সবার জন্য

0
167


শিশু-কিশোররা আগামীর ভবিষ্যত। তারা যাতে খারাপ পথে পা না বাড়ায়, মাদকে আসক্ত না হয়, জঙ্গিবাদে না জড়ায়-সেজন্য কাজ করে যাচ্ছেন নেত্রোকোনা জেলা সদরের।

খতিবনবুয়ার সন্তান ইংল্যান্ড প্রবাসি রিয়াজুল আলম খান রাজন তিনি ছয়মাস পরপর যখনই দেশে আসেন, তখনই শিশু-কিশোরদের নিয়ে নানা ধরনের কর্মসূচি গ্রহণ করেন। গত ১০ বছর ধরে নিরবে ব্যক্তিগত ভাবে এধরনের কাজ করে আসছেন।

এরই ধারাহিকতায় আজ রোববার শিশু-কিশোরদের নিয়ে একটি সচেতনতামূলক সভা ও র‌্যালি করেন। র‌্যালিটি খতিব নগুয়া থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ওই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।

র‌্যালি থেকে সচেতনতা মূলক বিভিন্ন লিফলেট বিতরন করা হয়।র‌্যালিতে পাঁচশতাধিক শিশু কিশোর অংশ নেন।

গ্রুপ অব ৫০০ ( ফাইভ হানড্রেড) এর ব্যানারে এ অনুষ্ঠান হয়। এ গ্রুপেরও পরিচালক রিয়াজুল আলম খান রাজন। শিশুদের একপ্লাট ফর্মে নিয়ে এসে সাংস্কৃতিক চর্চার মাধ্যমে তাদের মনস্তাত্ত্বিক বিকাশের জন্য সম্প্রতি তিনি এই গ্রুপটি করেন। গত ১৫ দিনে প্রায় দেড় হাজার সদস্য হয়েছে। মাদক থেকে মুক্তারাই এই গ্রুপের সাথে থাকতে পারবে।

সভায় শিশু কিশোরদের উদ্দেশে রিয়াজুল আলম খান রাজন বলেন, আমি চাই মানুষ যেন হাসতে পারে। কোন মানুষের ভদ্রতাকে যেন আমরা তার দুর্বলতা মনে না করি। আমরা সবাই সবার জন্য। নিজে হাসবো অন্যকে হাসাতে শেখাবো। ভাঙ্গতে হবে নিজেকে, গড়তে হবে। সুন্দরের সাথে থাকতে হবে, সুন্দরের চর্চায় নিবেদন করতে হবে নিজেকে।

ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখা এবং ভবিষ্যত রচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আজকের দিনের শিশু কিশোররা। তাদের যথার্থ ও সামগ্রিক মনস্তাত্বিক বিকাশের জন্য গ্রুপ অব ৫০০ এর ব্যানারে বিবিন্ন সময়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্টান যেমন- নাচ, গান, অভিনয়, আবৃতি অনুষ্ঠান করা হয় ।

খেলাধুলার মধ্যে ক্রিকেট, ফুটবল, ব্যাডমিন্টন,দাবা কেরাম সহবিভিন্ন্ খেলার আয়োজন করা হয়। বিভিন্ন সমাজসেবামুলক কার‌্যক্রম-সেচ্চায় রক্তদান কর্মসূচি। এছাড়া বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ভ্রমণ, বার্ষিক বনভোজন ও পূণমিলনী আয়োজন করা হয়।

এসব কার‌্যক্রমের মধ্য দিয়ে শিশু-কিশোরদের সুস্থধারার সাংস্কৃতিক ও সামাজিক চর্চার সাথে সংযুক্ত করতে চেষ্টা করে হচ্ছে। যাতে তাদের মধ্যে দেশপ্রেম, মানবতা, শৃঙ্খলা, সহমর্মিতা ও সহযোগিতার মনোভাব বিকশিত হয়।

গ্রুপ অব ৫০০ এর প্রতিষ্ঠাতা রিয়াজুল আলম খান রাজন মনে করেন, খেলাধুলা, বইপড়া, নাচ, গান, আবৃতি, ছবি আঁকা, সমাজের দুস্থ ও অভাবগ্রস্থ মানুষদের সহযোগিতার মধ্য দিয়েই একজন পরিপূর্ণ, বিকশিত ওসংবেদনশীল মানুষ তৈরি হলেই আগামীদিনের ভবিষ্যত হবে সুন্দর ও স্বপ্নময়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here