এই সরকারের মত নির্যাতন এরশাদও করেনি : মান্না

0
99


স্টাফ করেসপ‌ন্ডেন্ট: নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, এই সরকারের মত নির্যাতন এরশাদও করেনি। সোমবার (৮ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে সোনার বাংলা পার্টি ও জনদলের যুক্ত্রফ্রন্টে যোগদান উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন তিনি।

মান্না বলেন, মানুষ আজ আন্দোলন করতে গেলেই সরকার নির্যাতন করছে। অন্যায়ভাবে মানুষের নামে মামলা দিচ্ছি, হয়রানি করছে। পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে। এই সরকারের মত নির্যাতন এরশাদও করেনি।

সারা দেশে আজ সরকার বিরুদ্ধে ঐক্য গড়ে উঠেছে দাবি করে মান্না বলেন, সারা দেশে আজ সরকার বিরোধী ঐক্য গড়ে উঠেছে, এই ঐক্য ভোটের ঐক্য। মানুষ আমাদেরকে বলে আমরা কি ভোট দিতে পারবো? ভোটের নামে দেশে আর ছলচাতুরী করতে দেওয়া হবে না, এসব ছলচাতুরি বন্ধ করতে হবে। আমরা ঐক্যের মাধ্যমে দেশে কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই। গণতন্ত্র মানে শুধু স্বাধীনভাবে কথা বলার অধিকার নয়, গণতন্ত্র মানে আপনার স্বাধীন জীবন-যাপনের অধিকার। অথচ আজ দেশ স্বাধীনের ৪৭ বছরেও পূর্ণ গণতন্ত্র আসেনি।

নির্বাচন কমিশনের সমালোচনায় মান্না বলেন, পত্রিকায় দেখলাম প্রধান নির্বাচন কমিশন বলেছেন ডিসেম্বরে নির্বাচন এই রকম কথা বলেনি। আগে কি বলেছেন তিনি ভুলে গেছেন। তিনি মাঝে একবার বলেছিলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন করা আমাদের পক্ষে সম্ভব না।
গত কয়েক বছর ধরে সরকারের অবৈধ কীর্তি-কলাপ চালাচ্ছে, প্রকারান্তরে সরকারকে নির্বাচন কমিশন সেসব বিষয়ে সহযোগিতা করছে।তাহ‌লে দে‌শে সুষ্ঠ নির্বাচন কি ভা‌বে হ‌বে?

বাংলাদেশে কেউ একাধারে এতদিন ক্ষমতায় থাকতে পারিনি এমন দাবি করে মান্না বলেন, আমরা যুক্তফ্রন্টের পক্ষ গ্রহনযোগ্য নির্বাচনের জন্য ৫ দফা দাবি দিয়েছি। পরে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার পক্ষ থেকে সেই দাবি দেওয়া হয়েছে। এর আগে বিএনপির পক্ষ
থেকে একই দাবি দেওয়া হয়েছিল। সাধারণ মানুষ-সাংবাদিকরা আমাদের কাছে জিজ্ঞাসা করে এই সরকার তো দাবি মানবে না, শেখ হাসিনা ক্ষমতা ছাড়বে না, তাহলে আপনারা কি করবেন? আমি বলি- ক্ষমতায় কেউ চিরস্থায়ী থাকে না। বাংলাদেশে কেউ একাধারে এতদিন ক্ষমতায় থাকতে পারিনি। পাকিস্তানের আইয়ুব খান ও উন্নায়‌নের কথা ব‌লে‌ছে তারা ১০ বছর ক্ষমতায় ছিলেন, কিন্তু ক্ষমতার একদশক পালনের কিছুদিন পরেই তার পতন ঘটে। এখন আমাদের সরকার একইভাবে সারা দেশে উন্নয়নের মেলা করছে। তারাও ক্ষমতায় থাকতে পারবে না। গতকাল আপনারা দেখেছেন, যুক্তফ্রন্ট, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও বিএনপি ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন।

সোনার বাংলা পার্টির সভাপতি শেখ আব্দুর নূর এর সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সমাজতান্ত্রিক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, বাংলাদেশ জনদলের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান জয় চৌধুরী প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here