সরকার যতই কাহিনী করুক, নির্বাচন থেকে বের হচ্ছি না: মির্জা ফখরুল

0
312

ঠাকুরগাঁও- সরকার গ্রেপ্তার, হামলা-মামলা ও হয়রানির মাধ্যমে ত্রাস সৃষ্টি করেছে অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেছেন, তারা এসব করেছে যাতে আমরা নির্বাচন থেকে বেরিয়ে যাই। কিন্তু আমরাও পণ করেছি। সহজে বের হচ্ছি না।

শনিবার দুপুর ১টায় ঠাকুরগাঁও জেলা রির্টানিং কর্মকর্তার সাথে এক সাক্ষাৎকার শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

নির্বাচনে কর্মীদের জন্য শেষ বার্তা জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘আমি শুধু কর্মীদের জন্য একটি বার্তা দিতে চাই তা হলো- জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ভোট দিতে যেতে হবে। ভোট পাহারা দিতে হবে এবং ভোট যেন কেউ চুরি না করতে পারে সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।’

নিজ দলের কমীদের আটকের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘গতকাল বিএনপির যাদের আটক করা হয়েছে তারা অনেক গুরুত্বপূর্ণ নেতা। আমি এ বিষয়ে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও এসপি সাহেবকে জানিয়েছি। এরপরও আমাদের সাধারণ ভোটারকে কেউ হতাশ করতে পারবে না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা ১০ বছর পর নির্বাচনে এসেছি। তাদের উচিত ছিল আমাদের সাথে একটু ভাল ব্যবহার করে নির্বাচনে রাখা। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় হলো তারা তা না করে সারাদেশে গ্রেফতার, হয়রানি, হুমকি-ধমকি দিয়ে একটা ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে, যাতে আমরা বের হয়ে যাই। কিন্তু আমরাও পণ করেছি, সহজে বের হচ্ছি না।

ভোট দিমু না, ভোটের গুষ্টি কিলাই: এরশাদ

ঢাকা- রাত পোহালেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এদিন সরকারি ছুটি থাকায় অনেকেই ভোট দিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে চলে গেছেন গ্রামের বাড়িতে।

এই নির্বাচন নিয়ে সবাই যেন উৎসবে মেতেছে। কিন্তু আনন্দ নেই কেবল সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের। অসুস্থতার কারণে এবার ভোট দিতে নিজ কেন্দ্রে যাচ্ছেন না রংপুর-৩ আসনে মহাজোটের এই প্রার্থী।

এরশাদের এপিএস মনজুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিন বলেন, রংপুরে খুব শীত পড়ছে। আর ডাক্তার এ সময় স্যারকে পূর্ণ রেস্টে থাকতে বলেছেন। তাই মনে হয় তিনি ভোট দিতে রংপুরে যাচ্ছেন না। তবে ঢাকা থেকে ভোট দেওয়ার সুযোগ থাকলে তিনি ভোট দেবেন।

জাপা চেয়ারম্যান এরশাদের পৈত্রিক বাড়ি রংপুর নগরীর নিউ সেনপাড়ায়। সেখানকার শিশু মঙ্গল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটার তিনি। সর্বশেষ রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ওই কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন তিনি।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুর সদর ৩ আসনের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করতেও রংপুরে আসেননি এরশাদ। তার পক্ষে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন জাপার মহাসচিব মশিয়ার রহমান রাঙ্গাসহ সিটি মেয়র মোস্তফাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এরপর তিনি অসুস্থ অবস্থায় ঢাকায় সিএমএইচে ভর্তি থাকার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে যান।

গুজব ছিলো নির্বাচনের আগে দেশে ফিরবেন না এরশাদ। কিন্তু সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বৃহস্পতিবার দেশে ফেরেন তিনি। তার পরেই আলোচনা শুরু হয় একদিনের জন্য হলেও রংপুরে প্রচারণায় যাবেন এরশাদ। কিন্তু তা আর হয়ে উঠেনি। এখন ভোট দিতে যাওয়ার সিদ্ধান্তও বাতিল করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here