দুর্নীতির প্রতি সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’

0
152

দুর্নীতির প্রতি সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দুর্নীতি করবো না, কাউকে করতেও দেবো না। দুর্নীতি ও অপরাধ যে করবে এবং যে প্রশ্রয় দেবে– তারা সবাই অপরাধী। অপরাধী যে দলেরই হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও অপরাধ করে ছাড় পাচ্ছেন না। তবে শুধুমাত্র আইন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দিয়ে দুর্নীতি ও অপরাধ দমন করা সম্ভব নয়। এজন্য সামাজিক সচেতনতাও সৃষ্টি করতে হবে।’

গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে  তিনি এ কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘যদি কোনো ধরনের অপরাধের সঙ্গে আমাদের দলেরও কেউ সম্পৃক্ত থাকে, আমি তাদেরও ছাড় দিচ্ছি না, ছাড় দেব না। শাসনটা ঘর থেকেই করতে হবে, আমিও তাই করছি। এমনকি আইন-শৃঙ্খলা সংস্থার কেউ এ ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকলে সঙ্গে সঙ্গে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিচ্ছি এবং এটা অব্যাহত থাকবে। কারণ এটা সমাজের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

বিরোধী দল জাতীয় পার্টির বেগম রওশন আরা মান্নানের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রিত্বটা হলো একটা সুযোগ মানুষের জন্য কাজ করার। আমি সার্বক্ষণিক চেষ্টা করি সেই সুযোগটুকু কাজে লাগিয়ে দেশের মানুষের কতটা উন্নয়ন করা যায়। অন্যায়-অবিচারের হাত থেকে দেশের মানুষকে কিভাবে রক্ষা করা যায়।’

দুদককে শক্তিশালী করতে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা সংসদকে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে বিভিন্ন দফতরে প্রতিনিয়ত তাৎক্ষণিক অভিযান পরিচালনা করছে। এতে বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতির প্রবণতা কমে আসছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও দফতরে দুর্নীতির মাত্রাও ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাচ্ছে বলে দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী।

দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন এবং সাংস্কৃতিক অগ্রগতি হয়েছে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইতিহাস বিকৃতি রোধ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশ গড়ে তোলার কাজ শুরু হয়েছে; এই ধারা যেন অব্যাহত থাকে। সেজন্য সমাজ থেকে সকল অন্যায় ও অবিচার দূর করতে হবে। দুর্নীতি করবো না, কাউকে করতেও দেবো না। ঘুষ নেওয়া যেমন অপরাধ, দেওয়াটাও সমান অপরাধ। দুর্নীতি ও অপরাধ যে করবে এবং যে প্রশ্রয় দেবে– তারা সবাই অপরাধী।’

দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনামূলক কাজ করতে সংসদ সদস্য ও স্থানীয় সরকারসহ সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সবাই মিলে কাজ করলে সমাজ থেকে অপরাধ ও দুর্নীতি দূর করতে পারবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here