জনকল্যাণমূলক বাজেট

0
109

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটকে জনকল্যাণমুখী আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ‘বাজেট নিয়ে সাধারণ মানুষ খুশি কিনা তা দেখতে হবে। এটা আমাদের ১১তম বাজেট। যতটুকু আমি বলেছি তার থেকে অনেক বেশি কিছু রয়েছে বাজেটে। এই বাজেট যাতে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হয়, সেজন্য সবাই কাজ করবে।’

মুস্তফা কামাল অসুস্থতার কারণে বৃহস্পতিবার পুরো বাজেট বক্তৃতা উপস্থাপন করতে পারেননি। শুক্রবার বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনেও আসতে পারেননি অর্থমন্ত্রী।

বিকাল তিনটায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বাজেট পরবর্তী প্রতিক্রিয়ার দিকে ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে কিছু লোক থাকে, যাদের একটা মানসিক অসুস্থতা থাকে, তাদের কিছুই ভালো লাগে না। আপনি যত ভালো কাজই করেন, তারা কোনো কিছু ভালো খুঁজে পায় না। এটা ভালো না লাগা পার্টির অসুস্থতা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সাধারণ মানুষ খুশি কি-না, তাদের মঙ্গল হচ্ছে কি-না- সেটাই গুরুত্বপূর্ণ। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এখন আমাদেরকে কেউ ভিক্ষুকের জাতি মনে করে না। এটাই সব থেকে বড় অর্জন। কালো টাকা সাদা করার সুযোগ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে অপ্রদর্শিত টাকা রয়েছে। নানাভাবে এ টাকা পাচার হচ্ছে। পাচার হওয়া অর্থ অর্থনীতির মূল ধারায় ফিরিয়ে আনতে হবে। বিনিয়োগ বাড়াতেই কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হলে জিনিসপত্রের দাম সহনীয় থাকবে আশা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণকে কষ্ট দিয়ে নয়, বরং সবাইকে সম্পৃক্ত করে রাজস্ব আদায় বাড়ানো হবে। তিনি আরও বলেন, সরকার সবাইকে চাকরি দিতে পারে না। কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে পারে। নিজে যাতে কিছু করে স্বাবলম্বী হতে পারে, বাজেটে তার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, যখন দেশে একটা গণতান্ত্রিক পদ্ধতি থাকে, যখন দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়, সাধারণ মানুষের উন্নতি হয়, তখন তারা কোনোকিছুই ভালো দেখে না। সব কিছুতেই কিন্তু খোঁজে। সিপিডি কী গবেষণা করে এবং তারা দেশের জন্য কী আনতে পেরেছে-সেই প্রশ্ন রেখে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারপরও তাদের একটা কিছু বলতে হবে। তো সেটা ভালো এত সমালোচনা করেও আবার বলবে-আমরা কথা বলতে পারি না। এ রোগটাও আছে। এটা অনেকটা অসুস্থতার মত। বাজেট নিয়ে সমালোচনার জবাব দিতে গিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমার কথা হচ্ছে, সাধারণ জনগণ খুশি কি না। সাধারণ মানুষ খুশি কি না। সাধারণ মানুষগুলির ভালো করতে পারছি কি না। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার এবার নিয়ে টানা ১১ বারের মত বাজেট দিল। আমরা যা করছি, তার সুফলটা কিন্তু মানুষের কাছে পৌঁছাচ্ছে। আর এই ভালো না লাগা পার্টি যারা, তাদের কোনো কিছুতেই ভালো লাগবে না। সমালোচকদের জবাব দিতে গিয়ে একটি বাংলা কৌতুকের কথাও মনে করিয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, একটা গল্প আছে না, পড়াশোনা করছে ছেলে, বলা হলো পাস করবে না; পাস করার পরে বললো চাকরি পাবে না; চাকরি পাওয়ার পর বললো বেতন পাবে না; বেতন পাওয়ার পরে বললো বেতনের টাকা চলবে না। তো উনাদের সেই অসুস্থতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here