ফাইনালে ওঠার চ্যালেঞ্জ আজ

0
11

এক অস্থির সময়ের মধ্য দিয়ে চলছে বাংলাদেশ দল। মাঠে নামার সুযোগ পাওয়ার আগেই প্রথম দুই ম্যাচের স্কোয়াডে থাকা তিনজন বাদ পড়েছেন। তাই গ্রুপ পর্বের শেষ দুই ম্যাচের জন্য যে পাঁচজন স্কোয়াডে এসেছেন, তাদের মাঠে নামা নিয়েও একটা সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে। সে শঙ্কার মধ্যেই আজ বুধবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নাঈম শেখের অভিষেকের সম্ভাবনা রয়েছে।

মঙ্গলবার অনুশীলনে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো পাশাপাশি নেটে ব্যাটিং করতে নামিয়ে দেন দলে আসা দুই নতুন নাঈম শেখ ও নাজমুল হোসেন শান্তকে। প্রথমে নাঈমের একটি শট দেখে খুশি হয়ে উঠেছিলেন কোচ। কিন্তু পরে খুব একটা মন ভরানো ব্যাটিং করতে পারেননি নাঈম। জাতীয় দলের নেটে প্রথম দিন বলেই হয়তো-বা কিছুটা নার্ভাস ছিলেন তিনি। সে তুলনায় নাজমুল হোসেন শান্ত বেশ স্বচ্ছন্দই ছিলেন।

এদিকে, সাগর পাড়ের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সবশেষ কবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি হয়েছিল, তা মনে করতে পারছিলেন না স্টেডিয়াম সংশ্লিষ্ট অনেকেই। নিয়মিত বিপিএলের ম্যাচ হওয়ায় আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির কথা মনেও নেই অনেকের।

তবে স্টেডিয়ামের কিউরেটর জাহিদ রেজা বাবুর মনে আছে সব, ‘২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ।’ কতটা তীক্ষ্ম তার স্মৃতি, ওই ম্যাচের ফলও বলে দিলেন গড়গড় করে, ‘দু্ই রানে ও তিন‍ উইকেটে ম্যাচ হেরেছিলাম আমরা।’

তবে মঙ্গলবারের অনুশীলনে কিছুটা জড়তা থাকলেও গত মাসে আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে ৫০ ওভারের ম্যাচে ১৩৬ রানের ইনিংস খেলায় এগিয়ে আছেন নাঈম। সেন্টার উইকেটে নাঈমের বড় শট খেলা দেখেও তার অভিষেকের ইঙ্গিত পাওয়া গেল।

মঙ্গলবারের অনুশীলনে আরেক নবীন লেগস্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের ওপরও নজর ছিল সবার। তবে নেটে তার বল খুব একটা টার্ন করতে দেখা যায়নি। লাইন-লেন্থও খুব একটা ভালো ছিল না। তবে অনূর্ধ্ব-১৯ দল থেকে আসা আমিনুলের জন্যও মঙ্গলবার ছিল জাতীয় দলে প্রথম দিন। তিনিও সম্ভবত নার্ভাস ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here