ইতিহাস গড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ

0
111

বিশ্বের প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি খেলেছিল অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। সে ম্যাচে ৪৪ রানের ব্যবধানে জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। স্বাভাবিকভাবেই যতদিন রবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট, ততদিন এ ম্যাচটিও থাকবে ইতিহাসের অংশ হয়ে।

তেমনিভাবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে নতুন মাইলফলক গড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি। কেননা এ ম্যাচের মধ্য দিয়েই চার অঙ্ক ছুঁতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে টস করতে নামবেন টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা। আর তা হলেই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পূর্ণ হবে ১০০০টি ম্যাচ। অর্থাৎ কুড়ি ওভারের ফরম্যাটের ১০০০তম ম্যাচটি খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

টানা তিন দিন চোখ-মুখ বেঁধে অনুশীলন করতে হয়েছে মাহমুদউল্লাহ-লিটনদের। অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে অনুশীলনের একেকটা সেশন যেন স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়ানো। আজ এখানেই শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারতের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। কুড়ি ওভারের প্রথম ম্যাচটা শেষ হলেই যেন বাঁচে টাইগাররা! বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শুরু হবে ২২ গজের রোমাঞ্চকর যুদ্ধ। এই যুদ্ধে পর্যাপ্ত গোলা-বারুদের সঞ্চারণ করতে পারেনি বাংলাদেশ। যুদ্ধের ময়দানে মাহমুদউল্লাহরা ভারতের মুখোমুখি হচ্ছেন দলের অন্যতম সেরা দুই তারকা সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল ছাড়া। প্রথমজন ভারতীয় এক জুয়াড়ির ম্যাচ গড়পেটার প্রস্তাব গোপন করে পেয়েছেন দুই বছরের নির্বাসন। নতুন করে আইন না ভাঙলে আগামী বছরই সাকিবের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার দরজা খোলা থাকবে।

তামিম পুরো সফর থেকে ছুটি নিয়েছেন পারিবারিক জটিলতার কারণে। সাইফুদ্দিন ছিটকে গেছেন ইনজুরি নিয়ে। অভিজ্ঞ এসব ক্রিকেটারের অনুপস্থিতি নতুনদের কাঁধে চাপিয়ে দিচ্ছে বিরাট এক চ্যালেঞ্জ। চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় শারীরিক এবং মানসিক উভয় পরীক্ষাই দিতে হচ্ছে টাইগারদের। তবে বাংলাদেশের শক্তিমত্তা কমলেও দলটাকে হালকাভাবে নিচ্ছেন না ভারতের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

কাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ বৈঠকে তিনি বলেছেন, ‘আমি জানি ওদের স্কোয়াডে খুব গুরুত্বপূর্ণ দুই খেলোয়াড় নেই। কিন্তু দলে ভালো মানের আরও অনেক খেলোয়াড় আছেন এবং তারা যে কাউকে হারাতে পারেন। বাংলাদেশ অনেক ভালো দল। আমরা সবাই দেখেছি ওরা কেমন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে পারে। ঘরে বা প্রতিপক্ষের মাঠে ওরা খুবই শক্তিশালী দল। ওরা সব সময় আমাদের চাপে ফেলে। ওদের আমরা কখনো অন্যভাবে দেখি না।’

দেখার সুযোগও নেই। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে টাইগারদের হারাতে সবটুকু নিংড়ে দিতে হয়েছে ভারতকে। এবার তেমনটা হবে কি না এ নিয়ে সংশয়ে আছে খোদ বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরাই। বাংলাদেশকে আরো হতাশ করছে ভারতের বিরুদ্ধে কুড়ি ওভারের ক্রিকেট সংস্করণের পরিসংখ্যান। ক্ষুদ্রাকৃতির ক্রিকেটে কখনোই প্রতিবেশী দলটিকে হারাতে পারেনি টাইগাররা। আট ম্যাচের সবকটিতেই ভারতের বিরুদ্ধে হেরেছে বাংলাদেশ। এবার ইতিহাসের দুষ্টচক্র থেকে বের হতে পারবে তো সাকিব-তামিমবিহীন লাল-সবুজ দল? উত্তরটা দূরে নয়।

ভারতের মাটিতে শেষবার বিশ্বকাপে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। ব্যাঙ্গালুরুতে সেই ম্যাচটা যেমন রেণু ছড়ানো উত্তেজনা উপহার দিয়েছে, তেমনি ম্যাচটা ঘিরে তৈরি হয়েছিল তুমুল বিতর্ক। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের মুখোমুখি হওয়ার আগুনে লড়াইয়ের মধ্যে ঘি ঢেলেছিল থ্রিলার ওই ম্যাচটাই। যেখানে এক রানে হেরে বিশ্বকাপের মঞ্চ থেকে ছিটকে যায় টাইগাররা।

সম্ভাব্য একাদশ
বাংলাদেশ : লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাঈম/মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, অফিফ হোসেন ধ্রুব, আরাফাত সানি, মুস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, আবু হায়দার রনি/তাইজুল ইসলাম।

ভারত : রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, সঞ্জু স্যামসন/লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, ঋষভ প্যান্ট (উইকেটরক্ষক), শিভাম ডুবে, ক্রুনাল পান্ডিয়া, ওয়াসিংটন সুন্দতর, যুজভেন্দ্র চাহাল/রাহুল চাহার, দিপক চাহার, শার্দুল ঠাকুর/খলিল আহমেদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here