বিএনপি নেতাদের প্রচারণা মোকাবিলায় আ. লীগের প্রার্থীই যথেষ্ট: কাদের

0
102

নেতাকর্মীদের আচরণবিধি লঙ্ঘন না করে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন।

এ সময় এমপি-মন্ত্রীদের দ্বারা যাতে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন না হয়- এই ব্যাপারে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদেরকে মন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করে নির্বাচনি প্রচারে নামার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার এই বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি একবারের জন্যও কি আচরণবিধি লঙ্ঘন করার মতো কোনও কাজ করেছি? সমাবেশে অংশ নিয়েছি? তাহলে মির্জা ফখরুল সাহেব কেন এই অবান্তর প্রশ্নটা করতে গেলেন।’ কাদের বলেন, ‘চ্যালেঞ্জ করা লাগবে না। যদি চ্যালেঞ্জ বলেন তাহলে বলবো, আমাদের মন্ত্রী-এমপিদের প্রয়োজন হবে না। আমাদের দু’জন ক্লিন ইমেজের মেয়র প্রার্থীই যথেষ্ট আপনাদের বিএনপির নেতাদের ক্যাম্পেইনের মোকাবিলা করার জন্য।’

যারা এমপি-মন্ত্রী আছেন তাদের দ্বারা যাতে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন না হয়, এই ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা রয়েছে বলেও জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। নেতাকর্মীদের আচরণবিধি লঙ্ঘন না করে নির্বাচনি প্রচারণায় অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের দুই নেতা আমির হোসেন আমু ও তোফায়েল আহমেদের নির্বাচনি প্রচারণা না চালানোর বিষয়ে সিইসির বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন যে কথা বলেছে সে বিষয়ে আমরা দ্বিমত পোষণ করি না। এখানে আমাদের আরও রাজনৈতিক কার্যাবলি আছে, সিটিতে আরও কাজ আছে, সেটা তারা করবেন। তারা ক্যাম্পেইনে অংশ নেবেন না। নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন হবে তেমন কোনও কাজে তারা অংশ নেবেন না। অহেতুক কোনও বিতর্ক আমরা সৃষ্টি করতে চাই না।’ নির্বাচন কমিশন যদি মনে করে আচরণবিধি কেউ লঙ্ঘন করেছে, তারা যে কোনও পদক্ষেপ নিতে পারে বলে এ সময় মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here