আজ বাসন্তী ভালোবাসা

0
31

আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি, এবার বসন্তের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। পঞ্জিকার পরিবর্তনে এবার ঋতুরাজ বসন্তের দিনেই দিবসের জয়গান ফুলে ফুলে সুশোভিত হবে বাসন্তি ভালবাসায়। ফলে সারাদিন আজ বর্ণিল নানা আয়োজনে থাকবে উৎসব।

প্রেমিক-প্রেমিকা, বন্ধুবান্ধব, স্বামী-স্ত্রী, মা-সন্তান, ছাত্র-শিক্ষকসহ বিভিন্ন বন্ধনে আবদ্ধ মানুষেরা এই দিনে একে অন্যকে তাদের ভালোবাসা জানায়।

বর্তমানে সমগ্র বিশ্বে এই দিনটিকে খুব ঘটা করে আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে পালন করা হয়। এই দিনে পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো ভালোবাসার মানুষে পরিপূর্ণ থাকে। ভালোবাসা দিবসের এই দিনে প্রিয়জনকে সবাই ফুল ও বিভিন্ন সামগ্রী উপহার দিয়ে থাকে। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস কয়েক বছর আগ পর্যন্তও বিশ্বব্যাপী ঘটা করে পালন করা হতো না।

এ দিবসটি যুক্তরাষ্ট্র বা পাশ্চাত্য সমাজের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। বর্তমানে দিবসটি বিশ্বব্যাপী দেশে দেশে আনন্দ উন্মাদনার সঙ্গে পালন করা হয়। প্রাচীন রোমে ১৪ ফেব্রুয়ারি ছিল রোমান দেবদেবীর রানী জুনোর সম্মানে ছুটির দিন। জুনোকে নারী ও প্রেমের দেবী বলে লোকে বিশ্বাস করত।

কারও কারও মতে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবস হওয়ার কারণ ছিল এটিই।

বর্তমান সময়ে ভ্যালেন্টাইন্স দিবসের কদর প্রবলভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে পাশ্চাত্যে এ উৎসব মহাসমারোহে উদযাপন করা হয়। যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের মানুষেরা এই দিবস উপলক্ষে এই দিনে প্রায় কয়েক কোটি ডলার ব্যয় করে।

ভালোবাসা দিবসের জন্য মানুষ কার্ড, ফুল, চকোলেট ও অন্যান্য উপহার সামগ্রী ক্রয় করে। যুক্তরাষ্ট্রে এই দিনে প্রায় ৩ কোটি শুভেচ্ছা কার্ড আদান-প্রদান করা হয়। ব্যাপক প্রচার ও আকর্ষণের কারণে বর্তমানে এই দিবসটি একটি প্রধান দিবস হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

বাংলা বর্ষপঞ্জির পরিবর্তনের কারণে, এবার এই দিনের উদযাপন মিশেছে, বসন্তবরণের সাথে। বাঙালির প্রাণের ঋতু বসন্তের সঙ্গে ভালোবাসা দিবস মিলেমিশে একাকার হওয়ায় ভোরে বিশিষ্ট রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ও সুরের ধারার সঙ্গীতের সুর মূর্ছনা দিয়ে শুরু হয় উৎসব। নেচে গেয়ে আবির খেলায় মাতেন শিল্পীরা। উৎসবের এই রঙে প্রতিটি মানুষের হৃদয়ের বন্ধন, আরও দৃঢ় হওয়ার প্রত্যাশা সবার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here