সাকিবের অনাপত্তিপত্র পুনর্বিবেচনা করবে বিসিবি

0
70

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলতে সাকিব আল হাসানকে দেয়া অনাপত্তিপত্র পুনর্বিবেচনা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। রোববার (২১ মার্চ) রাজধানীতে বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বাসায় এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান সংস্থাটির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান।

তিনি বলেন, ‘সাকিবের ইন্টারভিউ এখনও পুরোপুরি দেখিনি। তবে আপনার কাছ থেকে কিছু শুনেছি। যেখানে অনেক কথার মধ্যে একটা ছিল, ও চিঠি দিয়েছে, আমি নাকি সেই চিঠি পড়িনি। তাহলে ঠিক আছে, আমি ভুল বুঝতে পারি। ও টেস্ট খেলতে চাচ্ছে, ওর কথায় বোঝা গেছে। তাহলে কাল-পরশু বোর্ডের সবার সঙ্গে কথা বলে (আইপিএলের) এনওসি (অনাপত্তিপত্র) নিয়ে চিন্তা করব।’

আকরাম খান বলেন, ‘আমরা যখন খেলোয়াড় ছিলাম, যখন ২০-৩০ হাজার টাকা পেতাম তখনই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছি। বোর্ডের বিরুদ্ধে কোনোদিন কিছু বলিনি। এ ব্যাপারে পরবর্তী বোর্ড সভাতে আমরা সিদ্ধান্ত নিব, আজ সেটাই আলাপ করেছি।’

এর আগে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলতে আসন্ন শ্রীলংকা সফরের টেস্ট সিরিজ থেকে ছুটি দিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবির) কাছে পাঠানো চিঠির ব্যাপারে ভুল ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান।

ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকফ্রেঞ্জিকে দেয়া একটি সরাসরি সাক্ষাৎকারে সাকিব বলেছেন, ‘শুধু কথা হচ্ছে আমি টেস্ট খেলতে চাই না। আমি নিশ্চিত বিসিবিকে আমি যখন চিঠি দিয়েছি, যাঁরাই বলছেন যে আমি টেস্ট খেলতে চাই না বা টেস্ট খেলব না, তাঁরা চিঠিটা পড়েননি। আমি আমার চিঠিতে কোথাও উল্লেখ করিনি যে আমি টেস্ট খেলতে চাই না। আমি শুধু উল্লেখ করেছি, আমি বিশ্বকাপ প্রস্তুতির জন্য এই সময়টাতে আইপিএল খেলতে চাই। শুধু এইটুকুই বলেছি।’

সাকিবের দাবি, তার এই চিঠির ভুল ব্যাখ্যা করেছে বিসিবি। তিনি বলেন, ‘আকরাম ভাই বারবার বলেছেন, আমি খেলতে চাই না। আমার ধারণা, উনি চিঠিটি পড়েননি। আমি পাপন ভাইকে (বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান) ধন্যবাদ দিতে চাই, উনি সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। খেলোয়াড়দের এই স্বাধীনতা দেওয়া উচিত।’

সাকিবের ওই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে বিসিবির ক্রিকেটে অপারেশন্সের চেয়ারম্যান আকরাম খান যেমন দাবি করেছেন, সাকিব আর টেস্ট খেলতে চায় না। বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘সাকিব আরও তিন বছর আগে টেস্ট ছাড়তে চেয়েছিল। আমরা নেতৃত্ব দিয়ে তাকে বেঁধে রেখেছিলাম।’

সাক্ষাৎকারে বিশ্বের এক নম্বর ওয়ানডে অলরাউন্ডার বলেন, ‘বিশেষ করে আকরাম ভাই বলেই চলেছেন, আমি টেস্ট খেলতে চাই না। সম্ভবত কালও এক জায়গায় দাবি করেছেন, আমি দেশের পক্ষে আর টেস্ট খেলবো না। আমার মতে, উনি আমার চিঠিই পড়েননি। কিন্তু সবার পরিষ্কার হওয়া উচিত যে, ওই সময়ে ওয়ানডে সিরিজ থাকলেও আমি আইপিএল খেলতে চাইতাম।’

সাকিব আরও বলেন, ‘ক্রিকেট বোর্ডে দেশের ক্রিকেটের জন্য কাজ করছেন এমন হাতে গোনা দুই-তিনজন আছেন। সুজন ভাই ছাড়া নাম বলার মতো কেউ নেই। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জেতার জন্য পাপন ভাই এবং সুজন ভাইকে কৃতিত্ব দিতেই হবে। এছাড়া বলার মতো কাউকে পাচ্ছি না (হাঁসি)। এমনকি সাংবাদিকরাও খুব অল্প জায়গায় চোখ রেখে কাজ করেন। গেল পাঁচ বছরে কতজন ক্রিকেটার তৈরি করতে পেরেছি আমরা?’

আজ পাপনের বাসায় বৈঠক শেষে বিসিবি পরিচালক নাইমুর রহমান দুর্জয় বলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নিয়ে সাকিবের মন্তব্যের বিষয়ে বোর্ড সভায় আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here