‘মে মাসেই রাশিয়া থেকে আসছে ৪০ লাখ টিকা’

0
50

রাশিয়ার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ‘স্পুটনিক ভি’ ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শের পর রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দেয়া হয়েছে। মে মাসের মধ্যেই এই টিকাটি বাংলাদেশে আসবে বলে তিনি জানান। প্রথমে ৪০ লাখ টিকা আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার পাশাপাশি এই টিকাটি বাংলাদেশে দেয়া হবে। তবে যারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পেয়েছেন, তারা দ্বিতীয় ডোজ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকাই পাবে বলে তিনি জানান।

এর পাশাপাশি সিনোফার্মের টিকার অনুমোদন দেয়ার বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে বলে তিনি জানান। মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান জানান, রাশিয়া থেকে ‘স্পুটনিক ভি’ টিকা আমদানি করা হবে সরকারি পর্যায়ে।

‘সরকারের একটি কমিটি করা আছে, সেই কমিটির মাধ্যমে সরকারি পর্যায়ে যোগাযোগ করে, নেগোশিয়েশন করে, কত অ্যামাউন্ট আসবে, কী দাম হবে, সেটা নির্ধারণ করে এই ভ্যাকসিনটা আমাদের দেশে আমদানি করা হবে’, বলেন মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান।

মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান জানান, ‘স্পুটনিক ভি’দুই ডোজের ভ্যাকসিন। অর্থাৎ এটার ক্ষেত্রেও দুইটি ডোজ নিতে হবে। প্রথম ডোজ দেয়ার ২১ দিন পরে দ্বিতীয় ডোজ দিতে হয়।

‘তবে এখন পর্যন্ত সিদ্ধান্ত, যারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিয়েছেন, তারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকাই পাবেন’, তিনি বলেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা অন্য অনেক দেশ রাশিয়ার তৈরি করা এই টিকার অনুমোদন দেয়নি। তাহলে বাংলাদেশ কোন ক্যাটেগরিতে এই টিকার অনুমোদন দেয়া হলো, জানতে চাওয়া হলে মেজর জেনারেল রহমান বলছেন, ‘আমাদের ড্রাগ রেগুলেটরের যে নিয়ম রয়েছে, দেশে যে নিয়ম রয়েছে, তা মধ্যে থেকেই দিয়েছি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন না থাকলেও আমরা দিতে পারি। জরুরি অনুমোদন হিসেবে আমরা দিয়েছি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here