খালেদার পক্ষে দৃশ্যমান হলো কার্লাইলের তৎপরতা

0
179
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজাকে ‘রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র’ বলে অভিহিত করেছেন বিখ্যাত ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড কার্লাইল। এই মামলায় পর্যাপ্ত প্রমাণ ছিল না বলেও মনে করেন তিনি।

বর্তমানে খালেদা জিয়ার মামলার আইনি পরামর্শক হিসেবে কাজ করছেন লর্ড অ্যালেক্স কার্লাইল কিউসি। মামলার নথি দেখে ব্রিটিশ এই আইনজীবী জানান, তিনি এমন কোনো প্রমাণ দেখেননি, যার মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে অভিযুক্ত করা যায়। সাজা দেয়া তো দূরের কথা।’

তিনি বলেন, ‘আমি এমন কিছুই পাইনি, যা দিয়ে এই মক্কেল কোনো দুর্নীতিতে জড়িত বলে প্রমাণিত হয়।’

তার ভাষায়, ‘চলতি বছরের দেশে (বাংলাদেশে) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আমার কাছে সহজেই মনে হচ্ছে, তার বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ নেই। তাকে এভাবে গ্রেপ্তার করার অবশ্যই একটি কারণ আছে। আর তা একটিই- সরকার চায় না নির্বাচনে তিনি অংশ নিন।’

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় নিম্ন আদালত। একই মামলায় তার ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ আরো চারজনকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মামলায় চার্জশিটে বলা হয়েছে, তারা ট্রাস্ট থেকে দুই কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

বিএনপি শুরু থেকেই বলে আসছে, আগামী ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জাতীয় নির্বাচনে তাদের অংশ নেয়া নির্ভর করছে সুষ্ঠু নির্বাচন ও খালেদা জিয়ার মুক্তির ওপর।

এদিকে লর্ড কার্লাইলের অভিযোগের ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে কিছু বলবো না। এটা আদালতের একটি রায়।’

এর আগে কার্লাইলকে আইনজীবী নিয়োগ দেয়ায় বিএনপির সমালোচনা করেন আনিসুল হক। তিনি একে ‘দুঃখজনক’ হিসেবে মন্তব্য করে বলেন, এর আগে এই আইনজীবী জামায়াতের আইনি পরামর্শক হিসেবে কাজ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here