ইমরান সেনাবাহিনীর আদর্শ পুতুল

0
162

 ক্রিকেটের মাঠ থেকে ক্ষমতার মসনদে বসতে যাচ্ছেন সাবেক পাক ক্রিকেটার ইমরান খান। ২২ গজের পিচে যতটুকু আলোচিত ছিলেন ঠিক ততটুকু সমালোচিত রাজনীতির মাঠে। নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় না পেলেও প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌঁড়ে এগিয়ে একমাত্র তিনি। এখনও ক্ষমতায় না বসলেও বাহবার থেকে বেশি পেয়েছেন কটু কথা। ইমরান বাদ যাননি সাবেক স্ত্রী রেহাম খানের তীব্র সমালোচনা থেকেও।

রেহাম খান নির্বাচনের পর টুইট করে ইমরানকে তিরস্কার করলেও এবার ভারতীয় পত্রিকা দ্য হিন্দুকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইমরানকে বিদ্ধ করেছেন কথার বাণে। বলেছেন ইমরান একজন ‘আদর্শ পুতুল’। দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে ইমরানের নানা দোষ-গুণ।

সোনালীনিউজ-এর পাঠকদের জন্য রেহাম খানের সাক্ষাৎকার হুবুহ তুলে দেয়া হলো-

প্রশ্ন : আপনি বলেছেন ইমরান খান সেনাবাহিনীর প্রার্থী। কিন্তু পাকিস্তানে এ পর্যন্ত যতজন ক্ষমতায় এসেছেন সবাই কী সেনাবাহিনীর মদদপুষ্ট ছিল?

রেহাম খান : অবশ্যই। আপনার যদি স্মরণ থাকে ইমরান নওয়াজ শরীফকে আশ্রিত ব্যক্তি বলেছিলেন। আমি মনে করি সেনাবাহিনী চেয়েছে তাদের ক্ষমতাটা প্রকাশ করতে। তাই তারা ইমরানকে বেছে নিয়েছে। নওয়াজ যখন নিজের কর্তৃত্ব জাহির করা শুরু করেছিল তখনি সেনাবাহিনীর পুতুল হয়ে দৃশ্যপটে হাজির হন ইমরান।

প্রশ্ন : আপনার জীবনী রেহাম খানে আপনি লিখেছিলেন, ইমরানকে সেনাবাহিনী তৈরি করেছে, কিন্তু ২০০৮ সালে সেনাবাহিনীর অধীনে নির্বাচন বয়কট করেন ইমরান খান। এ সম্পর্ককে আপনি কীভাবে ব্যাখ্যা করবেন?

রেহাম খান : স্ত্রী হিসেবে আমি দেখেছি এবং শুনেছি। ইমরান সবসময় বলত সেনাবাহিনীর সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা। সে যদিও নির্বাচন বয়কট করেছে, কিন্তু সেনাবাহিনীর সমর্থন থাকায় ইমরান নিজেকে নিয়ে গর্ববোধ করত। তবে ২-৩ বছর আগ থেকেই ইমরান প্রধানমন্ত্রী হবেন এ বিষয়ে নিশ্চিত ছিলেন।

প্রশ্ন : ইমরান খান যখন ভারতে আসেন তখন বলেন, তার সঙ্গে পাকিস্তানির চেয়ে ভারতীয়দের সঙ্গে সখ্য বেশি। আপনি কী মনে করেন এটা ভারত সরকার এবং নরেন্দ্র মোদীর কাছে আসার জন্য এসব বলেছিলেন?

রেহাম খান : ইমরান অনেক সময় ভারতে কাটিয়েছে। এবং তার অনেক বন্ধুও রয়েছে এখানে। তাই ইমরান কখনো রাজনৈতিক প্রচারণায় ভারতের সমালোচনা করেনি। এটা তার ভণ্ডামি।

প্রশ্ন : অনেকে অভিযোগ তুলেছে আপনার আত্মজীবনী ছিল রাজনৈতিক এজেন্ডা। আপনার কাছে কী মনে হয়, এই বই নির্বাচনে কোনো প্রভাব ফেলেছে?

রেহাম খান : হ্যাঁ, অনেকেই বলেছে এ বইটি পাকিস্তান মুসলিম লীগ স্পন্সর করেছে। কিন্তু এটা মোটেও সত্য নয়। কিন্তু আমি মনে করতাম বইটি নির্বাচনে প্রভাব ফেলবে।

প্রশ্ন : এ বইটি বের করতে গিয়ে আপনি কোনো চ্যালঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন?

রেহাম খান: আমি মনে করি আমার আর একটা বই লেখা উচিৎ, বই বের করতে যে বাধার সম্মুখীন হয়েছি তা নিয়ে। আমার কর্মীরা ভীত ছিল, অনেক ঘুষের অফার এসেছিল এবং এটাও বলা হয়েছিল ইমরানের বিরুদ্ধে যারা দাঁড়াবে তারাই উড়ে যাবে।

প্রশ্ন : আপনি পাকিস্তানে ফিরতে চান? রাজনীতিতে যোগাদানের বিষয়ে বিবেচনা করবেন?

রেহাম খান : (হাসি), আমি পাকিস্তান ছাড়া বাঁচতে পারব না। হ্যাঁ, আমি ফিরবই।  এ জন্য আমার বাচ্চারা আমাকে মানসিকভাবে অসুস্থ ও ক্রেজি বলে। কিন্তু আমি ফিরে আসবো পাকিস্তানে। আর রাজনীতি? এখনও এ নিয়ে ভাবিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here