অবৈধ ফার্মহাউস নির্মাণের অভিযোগে সালমানকে নোটিশ

0
155

আবারও কি বিপাকে পড়তে চলেছেন সালমান খান? অবৈধ নির্মাণের অভিযোগে এবার সালমান ও তার পরিবারকে নোটিশ পাঠিয়েছে তার দেশের বন অধিদপ্তর। সাত দিনের মধ্যে ওই নোটিশের জবাব না দিলে খান পরিবারের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

ভারতের মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলার পানভেলে একটি ফার্মহাউস রয়েছে ভাইজানের। সালমান খান ছাড়াও ওই ফার্মহাউসের মালিকানা রয়েছে বাবা সেলিম খান, বোন অর্পিতা খান, আলভিরা খান, ভাই আরবাজ খান, সোহেল খান ও মা হেলেনের। এক অনাবাসী ভারতীয় অভি‌যোগ করেছেন ওই ফার্মহাউসটি তৈরি করা হয়েছে বন অধিদপ্তরের আইন না মেনে।

নোটিশে বলা হয়েছে, বন আইন ভেঙে ফার্মহাউস তৈরি করতে সিমেন্ট, কংক্রিট আনা হয়েছে। একইসঙ্গে ওই নির্মাণ করার জন্য অন্যান্য আইনও ভাঙা হয়েছে।

নোটিশে আরও বলা হয়েছে, উপ‌যুক্ত সময়ের মধ্যে ‌ওই নোটিশের জবাব না দেওয়া হলে, মালিকপক্ষের কিছু বলার নেই বলে ধরে নেওয়া হবে। এক্ষেত্রে আইন অনু‌যায়ী উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করা হয়।

এদিকে এ ব্যাপারে সালমানের বাবা সেলিম খান বলেন, ‘ফার্মহাউসটি নির্মাণের জন্য সব আইনই মানা হয়েছে। প্রয়োজনীর ফি-ও জমা দেওয়া হয়েছে। কোনওভাবেই ওটি কোনও বেআইনি নির্মাণ নয়।’

এর আগে কৃষ্ণসার হরিণ শিকার মামলায় বিপাকে পড়েন বলিউডের ভাইজান। মামলায় জেলও খাটাতে হয় তাকে। এবার বেআইনি নির্মাণের অভিযোগে বন অধিদপ্তরের নোটিশে আবারও বিপদে পরার আশঙ্কা সালমানের।

প্রসঙ্গত, চলতি বছর আলিবাগের ফার্মহাউস নিয়ে আইনি নোটিশ পৌঁছয় শাহরুখের কাছে। শাহরুখের ওই বাংলোর আনুমানিক মূল্য ১৪ কোটি ৬৭ লক্ষ টাকা। সমুদ্রতটে ১৯ হাজার ৯৬০ বর্গমিটারের এই বাংলোয় ছিল সুইমিং পুল, বিচ আর হেলিপ্যাডও। ২০০৪ সালে ওই কৃষি জমি কেনা হয়।

শর্ত হিসাবে বলা হয়েছিল, আগামী তিন বছরের মধ্যে ওই জমিকে চাষের জন্য ব্যবহার করার কাজ শুরু করতে হবে। কিন্তু দেখা যায় ফার্মহাউস হিসাবেই ওই জমিটিকে কাজে লাগাচ্ছেন না তিনি। এরপর আইনি নোটিশে কোনও সদুত্তর না মেলায় বাজেয়াপ্ত করা হয় ওই ফার্মহাউসটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here