সড়ক পরিবহন আইন মন্ত্রীসভায়

0
183

দেশইনফো প্রতিবেদক: মন্ত্রীসভায় উঠানো হয়েছে প্রস্তাবিত ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’-এর খসড়া। সোমবার মন্ত্রিসভায় নীতিগত অনুমোদনের সময় প্রস্তাবিত নতুন আইনে দুর্ঘটনার জন্য দণ্ডবিধি অনুযায়ী শাস্তি দেয়ার প্রস্তাব করা হয়।

দণ্ডবিধিতে তিন রকমের বিধানের মধ্যে নরহত্যা হলে ৩০২ ধারা অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডের সাজা। খুন না হলে ৩০৪ ধারা অনুযায়ী যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালিয়ে মৃত্যু ঘটালে ৩০৪ (বি) ধারা অনুযায়ী ৩ বছরের কারাদণ্ড হবে। ৩০৪(বি) ধারা অনুযায়ী তিন বছরের স্থলে ৫ বছর কারাদণ্ড এবং এই জামিনযোগ্য অপরাধকে অজামিনযোগ্য করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এছাড়া ওজনসীমা অতিক্রম (যেমন, ৫ টন ধারণক্ষমতার ট্রাকে এর থেকে বেশি ওজন পরিবহন) করলে গাড়ির মালিক ও চালককে তিন বছরের কারাদণ্ড বা ৩ লাখ টাকা জরিমানার বিধান ছিল নীতিগত অনুমোদনের সময়। প্রস্তাবিত খসড়ায় এ সংক্রান্ত শাস্তি বাদ দেয়া হয়েছে।

ফিটনেসবিহীন মোটরযান ব্যবহার করলে এক বছরের জেল বা সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা জরিমানার বিধান রাখা হয়েছিল নীতিগত অনুমোদনের সময়। তা কমিয়ে ২৫ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এ অপরাধে আগের আইনে ছয় মাস জেল বা ১০ হাজার টাকা জরিমানা হতো। এছাড়া প্রস্তাবিত আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সুযোগ রাখা হয়নি। বর্তমানে বিদ্যমান ‘দ্য মোটর ভেহিকেল অর্ডিন্যান্স ১৯৮৩’-তে এ আদালত পরিচালনার সুযোগ ছিল।

আইনজীবী মনজিল মোরসেদ যা বললেন : আইনটি নিয়ে আদালতে রিট করেছিলেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। আদালতের পর্যবেক্ষণ যাতে আইনের খসড়ায় পুরোপুরি প্রতিফলিত হয় তা নিশ্চিত করতে রোববার মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিবের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। এ সংক্রান্ত আদালতের পর্যবেক্ষণের কপিও তাদের কাছে দেন।

পরে মনজিল মোরসেদ বিভিন্ন গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের দাবি ফিটসেনবিহীন গাড়ি ডাম্পিংয়ে পাঠাতে হবে। সেখানে তার জরিমানা কমানো মানেই প্রেসার গ্রুপের কারণে করা হয়েছে। আইনে ওজনসীমা অতিক্রম করার শাস্তি ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সুযোগ বাদ দিলে পরিবহন খাতে অরাজকতা আরও বাড়বে।

আর দণ্ডবিধির ৩০৪(বি) ধারা অনুযায়ী তিন বছরের স্থলে ৭ বছরের বেশি শাস্তি দেয়ার কথা বলেছেন আদালত। সেটা না করে আরও কমিয়ে আইন করা হলে আদালতের আদেশের প্রতি অশ্রদ্ধা জানানো হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here