বাংলাদেশ ও বেলারুশের মধ্যে যৌথ কমিশন গঠনের আহ্বান

0
153
  • বাংলাদেশ ও বেলারুশের মধ্যে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা উন্নয়নে যৌথ কমিশন গঠনের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বেলারুশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে ফরেন অফিস কন্সালটেশনে (এফওসি) এ আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রতিনিধি হিসেবে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (দ্বিপাক্ষিক ও কনস্যুলার) মো. কামরুল আহসান, মস্কোতে দায়িত্বরত রাষ্ট্রদূত ড. সাইফুল হক এবং বেলারুশের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী এনড্রিই ডাপকিনাস উপস্থিত ছিলেন।

৩০ আগস্ট মিন্সকে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক্সটার্নাল পাবলিসিং উইং বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বৈঠকে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের সদস্য হিসেবে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সাথে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সহায়তা প্রদান করার বিষয়টির জন্যে কৃতজ্ঞতা জানান সচিব।

মো. কামরুল আহসান বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে বেলারুশকে সক্রিয় অংশীদার হিসেবে বিবেচনা করছি। তা ছাড়া দুই দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের বিনিময়ের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেওয়া প্রয়োজন। এছাড়াও বাণিজ্য ও বিনিয়োগের বিদ্যমান সম্ভাবনা উভয় দেশের মধ্যে উপলব্ধি করা উচিত।

তিনি বেলারুশের সরকারকে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলিতে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবিধা রয়েছে।

সচিব দুই দেশের চেম্বার অব কমার্সের মধ্যে মতবিনিময়ের গুরুত্বও তুলে ধরেন।

এফওসি’র শুরুতে বেলারুশীয় উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী পারস্পরিক সহযোগিতা জোরদার করার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি মন্তব্য করেন যে, বাংলাদেশ ও বেলারুশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে এবং জাতিসংঘের মত আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মে বাংলাদেশের ভূমিকা প্রশংসিত।

বৈঠকে ভবিষ্যতে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা সম্পর্কিত বাংলাদেশ-বেলারুশ যৌথ কমিশন গঠনের ওপর জোর দেন তিনি।

বৈঠকে উভয় পক্ষই শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও সংস্কৃতির মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা বৃদ্ধির পাশাপাশি ইস্ট ইউরোপীয় অর্থনৈতিক কমিশনের কাঠামোর অধীনে সহযোগিতা প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেন। পাশাপাশি স্থায়ী উন্নয়ন লক্ষ্যগুলির জন্য জাতীয় সমন্বয়কের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করতে সম্মত হয়। কর্মকর্তারা জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থায় দুই দেশের পারস্পরিক সহায়তা সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. কামরুল আহসান (দ্বিপাক্ষিক ও কনস্যুলার) পরে বেলারুশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্লাদিমির মেইকের সাথে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন।

বৈঠকে বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি সম্পর্কে বেলারুশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানানো হয় এবং সংকট সমাধানে তাদের সমর্থন আহ্বান করা হয়।

উভয় পক্ষ দ্বিপাক্ষিক উন্নয়নের পাশাপাশি সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থাসমূহকে শক্তিশালী করার ওপরও আলোচনা করেছেন।

বেলারুশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং বাংলাদেশের প্রতিনিধিদল জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে উভয় দেশের মধ্যে সহযোগিতার বিষয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here