ফ্যাসিবাদী শক্তির আগমন চায় বিএনপি

0
139


নিজস্ব প্রতিবেদক: সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, গণতন্ত্র রক্ষার আড়ালে ফ্যাসিবাদী শক্তির আগমন চায় বিএনপি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে যশোরের বাঘারপাড়ায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি যশোর জেলা ইউনিট আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, সবকুল হারিয়ে বিএনপি এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে।জাতীয় ঐক্যের নামে তারা জামাত ও দক্ষিনপন্থীদেরও হালাল করার পায়তারা চালাচ্ছে।তারা মুখে গণতন্ত্রের জন্য মায়াকান্না করে বেড়াচ্ছে অথচ গণতন্ত্রের কোন কাজ নিজেরাই করছেন না। আসলে বিএনপি বুঝে গেছে যে তাদের পায়ের তলায় আর মাটি নেই। তাই তারা মরিয়া হয়ে যা পারছে তাই করছে। তাদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে এখন তারা শয়তানের সাথেও জোটে যেতে আপত্তি নেই বলে দাবী করছে। শয়তানের সাথে জোটে যেতে যাদের বিবেকে বাধে না তাদের মুখে আর যাই হোক অন্তত গণতন্ত্রের কথা মানায় না।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. মাইদুল ইসলাম প্রধান এতথ্য জানান।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির গণতন্ত্রের মূলে হচ্ছে ফ্যাসিবাদী জনবিচ্ছিন্ন কোন গোষ্ঠীকে ক্ষমতায় নিয়ে আসা।অথচ গণতন্ত্রকে নির্বিঘ্ন করতে প্রয়োজন সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা,সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদ ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধিতা করা।বিএনপি গণতন্ত্র রক্ষার মূল এই কাজগুলির ধারে কাছেও হাটছে না।কাজেই বিএনপি’র মুখে গণতন্ত্রের বুলি আর শোভা পায়না।

দূর্ণীতি ও লুটপাটের রাজনীতি করায় বিএনপি উল্লেখ করে মেনন আরো বলেন, স্কুলের মাঠ দখল করে হাট বসানো,শিক্ষক নিয়োগে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায়,স্কুল কলেজে এমপিও দেয়ার নামে টাকা আদায়, হাওয়া ভবনের নামে অদৃশ্য ১০ শতাংশ টাকা তোলার কথা এদেশের মানুষ ভুলে যায়নি।পেট্রোল দিয়ে চলন্ত গাড়ীতে মানুষকে পুড়িয়ে মারার দৃশ্যও দেশের মানুষ ভুলে যায়নি।দেশব্যাপী একযোগে সকল জেলায় কারা বোমা মেরেছে, একুশে আগস্ট বঙ্গবন্ধু কন্যাকে কারা মেরে ফেলতে চেয়েছে তা আজ সকলের সামনে পরিষ্কার।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি আজীবন এসকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাড়িয়েছে, এখনও আছে,সামনেও থাকবে। কাজেই সকল ফ্যাসিবাদী,সাম্প্রদায়িক,জঙ্গীবাদী অপশক্তির বিরুদ্ধে আমাদের সংগ্রাম চলবেই বলে জানান তিনি।

বন্দবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সবদুল হোসেন খানের সভাপতিত্বে জনসভায় আরো বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য ইকবাল কবীর জাহিদ,কমরেড মোস্তফা লুৎফুল্লা এমপি,কমরেড হাফিজুর রহমান এমপি,কমরেড জাকির হোসেন,কমরেড নজরুল ইসলাম,কমরেড জিল্লুর রহমানসহ অন্যান্য ছাত্র যুব নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here