নাটোরে ৭ মাদরাসা শিক্ষার্থী উদ্ধার-শিক্ষক পলাতক

0
128
নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের ভাতুরিয়া এমদাদুল উলুম কওমী মাদরাসার ৭ শিক্ষার্থীকে তাদেরকে নিয়ে পালানো ওই মাদরাসার শিক্ষক আব্দুস সাত্তারের দুলাভাইয়ের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সিংড়া উপজেলার তিরোইল গ্রাম থেকে তাদের উদ্ধার করে সিংড়া থানা পুলিশের মাধ্যম হয়ে নাটোর সদর থানা হেফাজতে রাখা রয়েছে। তবে এখনো পলাতক রয়েছে শিক্ষক সাত্তার।
এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত্তারের দুলাভাই আবু হানিফকেও থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। এর আগে গতরাতের কোন এক সময় তিনি ওই ছাত্রদের নিয়ে পালিয়ে যায় মাদরাসার শিক্ষক আব্দুস সাত্তার। প্রিয় সন্তানদের ফিরে পেলেও অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক ও তার তদন্ত করে বিচারের দাবী অভিভাবকদের।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গতরাত একটার দিকে মাদরাসার ছাত্ররা শিক্ষক সাত্তার ও ওই ছাত্রদের খুঁজে না পেয়ে মাদরাসার দায়িত্বরত হুজুরকে জানায়। পরে সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে অন্যান্য অভিভাবকরা মাদরাসায় জড়ো হতে থাকে। এরপর এলাকাবাসী পুলিশে খবর দিলে পুলিশ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঘটনাস্থলে যায়। এখনো ওই শিক্ষক আব্দুস সাত্তার নিখোজ রয়েছে। আব্দুস সাত্তার সিংড়া উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা।
স্থানীয়রা জানায়, মাদরাসার মুহতামিম মাদরাসার ঠিকমতো অবস্থান করেন না, তিনি আরেকটি মাদরাসা করে সেখানেও থাকেন। ঘটনার পর তাকে মাদরাসায় পাওয়া যায়নি। অভিভাবক স্থানীয়রা এ ঘটনার তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী করেছেন।
ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী পুলিশ উপ-পরিদর্শক সামসুজ্জোহা জানান, শিক্ষার্থীদের নিয়ে ওই শিক্ষক কেন নিখোঁজ হয়েছেন তা বিস্তারিত জানা যায়নি। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।
এদিকে বর্তমানে শিক্ষার্থীদের ও আটক আবু হানিফকে নাটোর সদর থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।উদ্ধারকৃত ছাত্ররা জানায়, তাদেরকে দ্রুত হাফেজ বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে অন্য মাদরাসায় ভর্তি করাতে নিয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here