এবার মেসি-রোনালদোকে অভদ্র’ বললেন

0
228

আর্জেন্টাইন ও বার্সেলোনা তারকা মেসি তো বর্ষসেরা খেতাব জয়ের দৌড়ে সেরা তিনেই আসতে পারেননি। রোনালদোর নাম ছিল। কিন্তু ইতালি থেকে তিনি আসেননি। গুঞ্জন আছে, পুরস্কার পাবেন না, তা আগেই জানতেন বলেই অনুষ্ঠানে আসেননি রোনালদো। স্বাভাবিকভাবে যা খেলোয়াড়দের নীতিবিরোধী এবং খেলার সঙ্গে বড্ড বেমানান। দুই তারকার এমন কাণ্ড ফুটবলকে অসম্মান করেছে বলে মনে করেন ফিফার এক প্রতিনিধি, ‘তারা ফুটবলকে অসম্মান করে, এমনকি তারা উপলব্ধিও করে না (যে ভুল করেছেন)।

১০ বছর পর এই প্রথম ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কার নতুন কোনো হাতে উঠল। শুধু ব্যতিক্রম এখানে নয়। ১০ বছর পর এই প্রথম এই অনুষ্ঠানটা হলো ফুটবল আকাশের দুই উজ্জ্বল তারকা মেসি ও রোনালদো ছাড়া। টানা ১০ বছর একে অপরের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলা এ দুই প্রতিযোগী ছাড়াই গতকাল লন্ডনে হয়ে গেল ‘ফিফা বেস্ট’ পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। প্রথমবারের মতো সেরা হয়ে সব আলো কেড়ে নিলেন ক্রোয়েশিয়া ও রিয়াল মাদ্রিদের মিডফিল্ডার লুকা মদরিচ।

গতকাল রাতেই মীমাংসা হয়ে গেছে, ফিফা বর্ষসেরা মদরিচ। কিন্তু পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মেসি-রোনালদোর অনুপস্থিত থাকাটা ভালোভাবে নেননি বেশির ভাগই মানুষ। সমর্থক থেকে শুরু করে অনেক তারকা ফুটবলাররাও দুয়োধ্বনি দিচ্ছেন মেসি-রোনালদোকে। কারও কারও মতে, ফুটবলকে অপমান করেছেন মেসি-রোনালদো। এ তালিকায় আছেন সাবেক তারকা ফুটবলার ডিয়েগো ফোরলান, ডেভর সুকার ও ইংল্যান্ড জাতীয় দলের সাবেক কোচ ফ্যাবিও ক্যাপেলো।

সবচেয়ে বেশি চটেছেন ইংল্যান্ডের সাবেক কোচ ক্যাপেলো, ‘রোনালদো আর মেসির অনুপস্থিতি খেলোয়াড়, ফিফা ও বিশ্ব ফুটবলের প্রতি অসম্মান করেছে। এটা সম্ভব যে তারা অনেক বেশি জিতেছে এবং হারতে পছন্দ করে না। আপনি যখন জিতবেন এবং যখন হারাবেন তখন আপনাকে ভালো হতে হবে।’

মেসি-রোনালদোকে তো পরোক্ষভাবে ‘অভদ্র’ই বলেছেন ক্রোয়েশিয়া ফুটবল ফেডারেশনের বর্তমান সভাপতি ও সাবেক তারকা ফুটবলার ডেভর সুকার, ‘যখন তুমি জিতবে, তখন তোমাকে ভদ্রতা দেখাতে হবে। যখন হারবে তখনো ভদ্রতা দেখাতে হবে।’

বিষয়টিকে খুবই দুঃখজনক বলে আখ্যায়িত করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও উরুগুয়ের সাবেক তারকা ফুটবলার ফোরলান, ‘বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। মেসি গত বছর এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবং জেতেননি। রোনালদোর ক্ষেত্রেও বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। এখানে প্রত্যেক খেলোয়াড়ের উপস্থিত থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ। কে পুরস্কারটা জিতল, তা বড় নয়। একজন খেলোয়াড়কে সব সময় খেলোয়াড়ি মনোভাব দেখাতে হবে। কারণ তাঁরা বিশ্বের জন্য মডেল।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here