গোপালগঞ্জে প্রতারক চক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার

0
174
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :রিপন ফকির (৪০)। করেন ইটের ব্যবসা। গত ১৩ আগষ্ট এক নারী তাকে ফোন করে বাড়ীতে দেওয়াল তুলবেন বলে ইট কেনার কথা বলেন। এসময় কতটা ইট লাগতে পারে জায়গাটি দেখে ওই নারীকে বলার জন্য অনুরোধ করেন। সরল বিশ্বাসে তিনি টুঙ্গিপাড়া উপজেলার নিলফা এলাকায় যান। এসময় তাকে ওই এলাকার প্রতারক চক্রের সদস্য কামরুল ইসলাম মোল্লার বাড়ীতে যেতে বলেন। তিনি সরল বিশ্বাস ওই বাড়ীতে গেলে প্রতারক চক্রের ওই নারী সদস্য নগ্ন হয়ে তাকে জড়িয়ে ধরেন। এসময় চক্রের অপর চার সদস্য মোবাইলে ছবি তুলে ব্লাকমেইল করে মারধর শুরু করেন। পরে ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে একলাখ টাকা হাতিয়ে নেন।
এই প্রতারক চক্রের শিকার শুধু রিপন ফকির নন। তাদের শিকার হয়েছেন সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বর ট্রাক ব্যবসায়ী গাজী আনিসসহ আরো ১৬ ব্যবসায়ী।
শুক্রবার রাতে গোপালগঞ্জ সদর গোপালগঞ্জর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেনের অফিসে বসে কিভাবে প্রতারনার শিকার হয়েছেন সাংবাদিকদের সেই বর্ণনা দিয়েছেন ওই দুই ভুক্তভোগী।
শনিবার রাতে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ব্যবসায়ীদের প্রতারনা মাধ্যমে জিম্মি করে নগ্ন ছবি তুলে অর্থ আদায়ের অভিযোগে এক নারীসহ ওই প্রতারনা চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
গ্রেফতারকৃতরা হলো, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার নিলফা গ্রামের ফরিদ মোল্লা ছেলে কামরুল ইসলাম মোল্লা (৫০), এিই উপজেলার একই গ্রামের জামাল মোল্লার ছেলে সোহাগ মোল্লা (২৮), একই জেলার সদর উপজেলার মানিকদাহ গ্রামের সিরাজুল হকের ছেলে রইচ শিকদার (৩৪), একই জেলার একই উপজেলার নবীনবাগ গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৫০) ও একই উপজেলার মেরী গোপীনাথপুর গ্রামের আব্দুল আজিজের মেয়ে সায়েরা আজিজ তিথি (১৮)।
গোপালগঞ্জর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন জানান, দীর্ঘ দিন ধরে একটি প্রতারক চক্র মালামাল ও ট্রাক ভাড়া নেওয়ার কথা বলে জেলার বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার কামরুল ইসলামের বাড়ীতে ডেকে নিতেন। এসময় চক্রের অপর নারী সদস্য নগ্ন হয়ে ব্যবসায়ীর সাথে ছবি তুলে ব্লাকমেল করে ষ্টাম্পে সই নিয়ে অর্থ আদায় করতেন। এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়ে গোপন সংবাদ ও টেকনোলজির মাধ্যমে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ওই নারী সদস্যসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।
তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত প্রতারক চক্রটি গত ১৩ আগস্ট গোপালগঞ্জের সদর উপজেলার বোয়ালীয়া গ্রামের ব্যবসায়ী রিপন ফকির ও ১৬ আগস্ট গোপালগঞ্জ সদর উপ‌জেলার চন্দ্রদিঘলিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী আনিস গাজীসহ বিভিন্ন সময় প্রতারনার মাধ্যমে ১৫ থেকে ১৬ জন ব্যবসায়ীর কাছে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার কথা স্বীকার করেছে। এ চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে। এব্যাপারে দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here