তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিলের সময় এই শ্রদ্ধা কোথায় ছিল- নজরুল

0
154


স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান আওয়ামীলিগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে প্রশ্ন করেছেন – তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিলের সময় সংবিধানের প্রতি এই শ্রদ্ধা কোথায় ছিল?

শুক্রবার ২ অ‌ক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লা‌বের কনফা‌রেন্স লাউ‌ঞ্জে জিয়াউর রহমান সমাজকল্যাণ প‌রিষ‌দের উ‌দ্যো‌গে ভোটা‌ধিকার ,ন্যায় বিচার , বাক স্বা‌ধিনতা এবং বেগম খা‌লেদা জিয়ার নিঃশর্ত মু‌ক্তির দা‌বি‌তে আ‌য়ো‌জিত আ‌লোচনা সভায় তি‌নি এসব কথা ব‌লেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ওবায়দুল কাদের বলেছেন – ‘পবিত্র সংবিধান সংশোধনের সুযোগ নেই।’ সংবিধানের প্রতি এত শ্রদ্ধাশীল যখন। তাহলে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিলের সময় এই শ্রদ্ধা কোথায় ছিল?

সেনাবাহিনী মোতায়েন করলে আওয়ামীলীগ ভোট ডাকাতি করতে পারবে না এমন দাবি করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, যখনই বলা হচ্ছে মন্ত্রী থাকা অবস্থায় কেউ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না, নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে, তখনই তারা বলছেন এটা অবাস্তব, অযৌক্তিক দাবি। তাদেরকে আমি বলবো , ৯৬ নির্বাচনে আপনারা এই দাবি করেছিলেন কোন যুক্তি কথার ভিত্তিতে। এখন জনগণ বুঝতে পেরেছে আপনাদের অবস্থা। কারণ আমাদের সেনাবাহিনী ট্রাফিক কন্ট্রোলে কাজ করতে পারে, দুর্যোগের সময় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করতে পারে কিন্তু নির্বাচনের সময় নামতে পারবে না। এটা কিসের জন্য সেটা তো জনগণ বুঝে, কারণ আপনারা তো ভোট ডাকাতি করতে পারবেন না সে জন্যই এত অযৌক্তিক কথাই বলছেন।

সমঝোতার জন্য আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়ে নজরুল ইসলাম খান বলেন, আমরা যারা রাজনীতি করি সবাই দেশকে ভালবাসি। আমরা দেশের কল্যাণ চাই, আমরা শান্তি চাই, সমৃদ্ধি চাই। জনগণ আমাদেরকে শ্রদ্ধা করুক, সম্মান করুক, যেন ভয় না পায় সেরকম একটা রাষ্ট্র গড়ে তোলার জন্য আলোচনায় বসি, কথা বলি। কথা বলে একটা সর্বসম্মত সমঝোতার মাধ্যমে অবাধ, সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন করি। সেই নির্বাচনে যদি জনগণ আওয়ামীলিগকে ভোট দেয় তাহলে তারাই সরকার গঠন করবে, আর যদি জনগণ তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করে তাদেরকে তা মেনে নিতে হবে। অপেক্ষা করতে হবে পরের নির্বাচনের
জন্য।

জিয়াউর রহমান সমাজ কল্যাণ পরিষদের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন খোকন এর সভাপতিত্বে ও মনজুর রহমান ভূঁইয়ার সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বরকতউল্লাহ বুলু, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সভাপতি ও বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুব, ‌জিনাফ সভাপ‌তি লায়ন মিয়া মোঃ আ‌নোয়ার ,দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কেএম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

এএইচএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here