পুরুষ নির্যাতন! তাও আবার মেয়ের হাতে

0
174

এক নারী রিক্সাচালকের ওপর চড়াও হয়েছেন। তিনি নিজেই ওই রিক্সার যাত্রী। দ্রুত রিক্সা না চালানোর কারণে তিনি চটেছেন।এক পর্যায়ে রিক্সা থেকে নেমে চালকের ওপর চড়াও হন তিনি।

ভিডিওতে রিক্সাচালকের ওপর মারমুখী দেখা যাচ্ছে তাকে। এক পর্যায়ে প্রকাশ্য দিবালোকে সবার সামনে রিক্সা থেকে নেমে চালকের গায়ে হাতও তোলেন তিনি। আবারো রিক্সায় উঠে হাতের ব্যাগ দিয়ে চালককে মারতে উদ্যত হন। ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে লাথি ছুঁড়তেও দেখা গেছে।

স্বাভাবিকভাবেই উৎসুক মানুষের ভিড় জমে। সেখানেও তাই হয়েছে। এক পর্যায়ে সেখানে থাকা এক বয়স্ক লোকের সঙ্গেও বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তিনি। অনেকেই তার এমন আচরণের প্রতিবাদ করছিলেন।

আরো পড়ুন…

আর নয় সিনামা ,এবার আল্লাহর পথে হাঁটতে চান এ অভিনেত্রী

ঢালিউডের নায়িকা পুষ্পিতা পপি। ২০১৫ সালে থেকে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় তার। চলচ্চিত্রে অভিষেকের পর তিনি ‘ধূসর কুয়াশা’, ‘পাঙ্কু জামাই’সহ পাঁচটি চলচ্চিত্র অভিনয় করেছেন।

তবে এবার সিনেমা ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন এই নায়িকা। তাই বাকি জীবনটা আল্লাহর পথে হাঁটতে চান এ অভিনেত্রী।

তার পরিবারের সবাই নামাজ-কালাম পড়েন জানিয়ে তিনি বলেন, আমার পরিবারের সবাই নামাজ-কালাম পড়ে। আমি ছোটবেলা থেকেই এসবের ভেতর বড় হয়েছি। যখন সিনেমার শুটিং করেছি, তখনো নামাজ পড়েছি।

ইদানীং আমার আল্লাহর ওপর ভয়টা বেড়েছে। নিয়মিত নামাজ-রোজা করছি। এখন আর অভিনয় করতে ইচ্ছে করছে না।

তবে তার এখনও ‘বিধ্বস্ত’, ‘ঠোকর’, শিরোনামে দুটি ছবি এখনো বাকি রয়েছে

পুষ্পিতা পপি চলচ্চিত্র দিয়ে শুরু হলেও নাটক ও মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন। শাকিব খান, বাপ্পি চৌধুরী, মারুফসহ চলচ্চিত্র নায়কদের বিপরীতে অভিনয় করেছেন।

আরো পড়ুন …

ইসলামের দৃষ্টিতে কি বলে ???

এটা শুধু আপনি নয়, নামাজ রোজা করা মুসলিম ছেলেমেয়েদেরও মেনে নিতে কষ্ট হয়! তার কথা তো আপনিই বললেন যে আপনি অনেক ধার্মিক ছেলেমেয়েকেও রিলেশন থাকতে দেখেছেন। আমরা যারা ইসলামটাকে একটা পরিপূর্ণ জীবনব্যাবস্থা হিসেবে মেনে নিয়ে তা জীবনে প্রয়োগ করে দেখাতে পারিনা তার অন্যতম কারন আমরা ইসলামটাকে দেখি একটা হালাল হারামের লিস্ট হিসেবে।

আমরা যখন আমাদের প্রবৃত্তির পূজা করতে যাই, যখন সেখানে ইসলামের বাধা আসে তখনই আগে পিছে চিন্তা না করে আমাদের মনে প্রশ্ন আসে ।

আপনি নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুনতো এই প্রেম করা নিয়ে কোন প্রশ্ন কি ছোটবেলা থেকে এসেছে? না! আসেনি! আমরা সবাই একটা নির্দিষ্ট বয়স পার করি, যে বয়সটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একই সাথে খুবই ভয়ংকর! যে বয়সটাতে আবেগ, ভালোলাগা, সবকিছু পজিটিভ ভাবা, বিপরীত লিঙ্গের প্রতি সীমাহীন আকর্ষণ সবকিছু আমাদের চারপাশে গিজগিজ করে! আর এই বয়সের সরলতা আর ভালোলাগার সুযোগ নেই শয়তান আর তা কাজে রুপান্তর করে দেখায় কাফির আর ইসলামের বিরুদ্ধ শক্তি যারা আল্লাহর নয় নিজেদের প্রবৃত্তির পূজা করে! আর তাই আজকে সমাজে স্কুলে প্রেম, কলেজে প্রেম, ভার্সিটিতে প্রেম, নাটক- সিনেমা- গল্প উপন্যাসে প্রেম! আর এসব দেখে শুধু আপনি নয় অনেকের মনে সেই একই প্রশ্ন প্রেম ? কারন আল্লাহ মহা পরিকল্পনাকারী! তিনি তার সৃষ্টির জন্য মঙ্গলজনক পন্থাই পরিকল্পনা করেছেন! তিনি মানুষের শরীর আর আত্মিক ক্ষতির আসংখা থেকে মানুষকে মুক্ত থাকার ব্যবস্থা করেছেন।

অতি সসীম এই মস্তিস্ক নিয়ে আমরা কখনও অসীম মহান আল্লাহর পরিকল্পনা বুঝতে পারবনা! কিন্তু আমরা এই দুনিয়াতেই তার পরিকল্পনার বাস্তবায়ন আর আদেশ অমান্যকারিদের পরিণতি দেখেছি, দেখছি, দেখব ইনশাআল্লাহ! আমরা একটা হারামকে শুধু হারাম হিসেবে দেখি কিন্তু একটা হারাম শুধু হারাম নয় এটা অনেকগুলো পথ যে পথে মানুষের অপকার আছে সেই পথগুলোও বন্ধ করে দেয়! ইসলামে মদ হারাম।

কিন্তু মদ তো মানুষ ভাল লাগে বলেই খায়!! তাহলে হারাম হবে কেন?? এটা বোঝা আমার আপনার কাছে দুরহ তো বটেই হজরত ওমর (রাঃ) ও বুঝতে পারেননি! তার প্রার্থনার প্রেক্ষিতে আল্লাহ তিনবার আয়াত নাযিল করার পর হজরত ওমর (রাঃ) বুঝতে পারেন কেন মদ হারাম হল! আর আমরা এখন জানতে পেরেছি বর্তমানে বিশ্বে মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ…অ্যালকোহল! মদপান! যেটা আল্লাহ ১৪০০ বছর আগেই হারাম করেছেন! ইসলামে এরকম অনেকগুলো হারামের একটি হল বিয়ে বাদ দিয়ে কিংবা বিয়ের আগে নারী পুরুষ প্রেমের সম্পর্ক! আর বরাবরের মতই ইসলামকে অন্তরে ধারণ না করে পাশ্চাত্য আর কুফরি সিস্টেমর আধুনিকতা অন্তরে ধারণ করা আজকের তরুণ তরুণী সেই হারামের ধার দারে না!

অনেকের কাছে এই হারামের জন্য ইসলাম হয়ে যায় সেকেলে! তার পরিণতিও হাতে নাতে!! পেতে অবৈধ বাচ্চা নিয়ে হাসপাতালে গর্ভপাত, রিকশা- সি এন জি তে মূল্যবোধ নৈতিকতা বিসর্জন, বয়ফ্রেন্ডের লালসার শিকার হয়ে বন্ধুবান্ধব নিয়ে গণধর্ষণ, বাজারে সেক্স ভিডিও, নিজের অসম্মান, পরিবারের অসম্মান আর সবশেষে এত এত অসম্মান সইতে না পারে গলায় ফাঁস!

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here