কমনওয়েলথ গেমসে গিয়ে খেলোয়াড়দের রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা

0
219

গত মাসে গোল্ডকোস্ট কমনওয়েলথ গেমসে অংশগ্রহণ করতে এসে হারিয়ে গিয়েছিল বেশ কয়েকজন আফ্রিকান অ্যাথলেট। শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করে তারা দৃশ্যমান হয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার উদ্বাস্তুবিষয়ক আইনজীবীরা মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন।

পর্যটননগরী গোল্ডকোস্টে অনুষ্ঠিত ২১তম কমনওয়েলথ গেমসে অংশগ্রহণ করতে এসে নিখোঁজ হয়ে যায় এক ডজনেরও বেশি আফ্রিকান অ্যাথলেট। রুয়ান্ডা, উগান্ডা এবং সিয়েরালিওন থেকে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে অস্ট্রেলিয়া এসেছিল তারা। এদের বাইরেও কর্তৃপক্ষ খুঁজে বেড়াচ্ছে গৃহযুদ্ধে জর্জরিত ক্যামেরুনের আট অ্যাথলেটকে। রিফিউজি অ্যাডভাইস অ্যান্ড কেইসওয়ার্ক সার্ভিসের (আরএসিএস) পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, এদের বিভিন্ন তদন্তের মুখোমুখি হতে হবে। তবে সঠিক সংখ্যা এবং ঠিক কোন দেশের নাগরিক, সে বিষয়ে তারা কিছু জানায়নি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরএসিএসের সলিসিটর সারাহ ডেলে বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় আশ্রয়প্রার্থী প্রতিটি ব্যক্তিকে তাদের দাবির বিষয়ে তদন্তের মুখোমুখি হতে হবে। সে ছাত্র হোক কিংবা সফরকারী, কর্মী বা অ্যাথলেট, যেই হোক। অস্ট্রেলিয়ায় সহায়তার জন্য যে কোনো পুরুষ, মহিলা কিংবা পরিবারকে একটি কঠিন প্রক্রিয়া পার করতে হয়।

মঙ্গলবার মধ্যরাতেই শেষ হয়ে গেছে অ্যাথলেটদের ভিসার মেয়াদ। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পিটার ডাটন হুশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, কোনো ব্যক্তি যদি মেয়াদের বেশি সময় ধরে অস্ট্রেলিয়ায় থেকে যায়, তাহলে তাকে জোর করে সেখান থেকে বিতাড়িত করা হবে।

মঙ্গলবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তারা যদি কোনো আবেদন করে, তাহলে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে তার বিষয় বিবেচনা করা হবে।

কিন্তু তারা যদি তাদের ভিসার চুক্তি ভঙ্গ করে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তারা যদি আত্মসমর্পণ না করে তাহলে তাদের অবস্থান চিহ্নিত করে শক্তি প্রয়োগ করা হবে।

উল্লেখ্য, আইন অনুযায়ী রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীরা এ বিষয়ে শুনানি চলাকালে অস্ট্রেলিয়ায় অস্থায়ী বসবাসের জন্য আলাদা ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here