বগুড়ায় মেয়েকে বিয়ে না দেয়ায় বাবাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

0
171
বগুড়ায় বালু ব্যবসায়ীকে জরিমানাআলমগীর হোসেন, বগুড়া  : বগুড়ার গাবতলীতে বখাটের সাথে মাদ্রাসা ছাত্রী বৃষ্টিকে বিয়ে দিতে রাজি না হওয়ায় বাবা ছায়েদ আলীকে (৪০) ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার রাতে উপজেলার পেরীরহাট সরকারপাড়া গ্রামের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে।
জনগণ রক্তমাখা ছুরিসহ রনি আহম্মেদ (২০) নামে কলেজ ছাত্র ও তার সহযোগি সাকিমকে (২২) আটক করে পুলিশে দিয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রনি ছুরিকাঘাতের কথা স্বীকার করেছে। রবিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় এ খবর পাঠানো পর্যন্ত মামলা হয়নি।
গাবতলি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) খায়রুল বাসার জানান, উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের পেরীরহাট সরকারপাড়া গ্রামের মৃত মদন আলীর ছেলে ছায়েদ আলী মুরগির ব্যবসা করতেন। তার মেয়ে বৃষ্টি খাতুন (১৬) স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় দশম শ্রেণীতে পড়ে। তাকে পার্শ্ববর্তী শাজাহানপুরের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে কাহালু ডিগ্রি কলেজে ম্যানেজমেন্ট প্রথম বর্ষের ছাত্র রনি উত্যক্ত করে আসছিল।
রনি সম্প্রতি বিয়ের প্রস্তাব দিলে ছায়েদ আলী তা প্রত্যাখ্যান করেন। এতে রনি ক্ষুব্ধ হয়। শনিবার রাত ৮টার দিকে রনি, তার সহযোগি একই গ্রামের টুকু সরকারের ছেলে সাকিমসহ ৪-৫ জন সঙ্গি নিয়ে ছায়েদ আলীর বাড়িতে যায়। রনি তার সাথে বৃষ্টিকে বিয়ে দিতে চাপ সৃষ্টি করে। রাজি না হওয়ায় তারা বৃষ্টিকে তুলে নিয়ে যাবার চেষ্টা করে। এ নিয়ে বাধা ও বাকিবিতন্ডার এক পর্যায়ে ছায়েদ আলীর উপর হামলা এবং ছুরিকাঘাত করা হয়।
গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেবার চেষ্টা করলে পথিমধ্যে তিনি মারা যান। জনগণ রক্তমাখা ছুরিসহ রনি এবং সাকিমকে আটক করেন। পরে তাদের পুলিশে দেয়া হয়।
ওসি আরো জানান, বিয়েতে রাজি না হওয়ায় রনি মেয়ের বাবাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে। রনিসহ দু’জনকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রনি ছুরিকাঘাতের কথা স্বীকার করেছে। রবিবার বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত মামলা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here