কলেজ ছাত্রকে হত্যা করায় চারজনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ

0
326

বুধবার সাতক্ষীরার জেলা ও দায়রা জজ সাদিকুল ইসলাম তালুকদার এ আদেশ দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ভাড়ুখালী গ্রামের রুপচান গাজীর ছেলে নাজমুল গাজী (২৫), একই গ্রামের করিম হোসেনের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন (৩০), দেবহাটা উপজেলার বহেরা গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে আলী আহম্মেদ শাওন ১৯) ও সদর উপজেলার মহাদেবনগর গ্রামের রেজাউল হোসেনের ছেলে সাজু হোসেন (২০)।

সাতক্ষীরার চাঞ্চল্যকর কলেজছাত্র গৌতম সরকার হত্যা মামলায় চার আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ মামলায় অপর ছয় আসামিকে আদালত বেকসুর খালাস দিয়েছেন। খবর ইত্তেফাক’র।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবিতে ২০১৬ সালের ১৩ ডিসেম্বর রাতে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা ইউনিয়নের মহাদেবনগর গ্রামের ইউপি সদস্য গনেশ সরকারের ছেলে সীমান্ত ডিগ্রি কলেজের সম্মান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র গৌতম সরকারকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে যায় আসামিরা। এ সময় মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে তাকে হত্যা করে লাশ স্থানীয় মোকলেছুর রহমানের পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া আসামি আলি আহমেদ শাওন ও শাহাদাত হোসেনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ১৭ ডিসেম্বর তার গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা গনেশ সরকার ১০ আসামির নাম উল্লেখ করে সাতক্ষীরা সদর থানায় মামলা করেন।

এ মামলায় খালাস প্রাপ্তরা হলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার মহাদেবনগর গ্রামের মোশারফ মিস্ত্রির ছেলে মহাসীন আলী, একই গ্রামের রেজাউল ইসলামের স্ত্রী ফজিলা খাতুন, মহাদেবনগর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে কবিরুল ইসলাম, ভাড়ুখালী গ্রামের শামসুদ্দিন সরদারের ছেলে নুর মোহাম্মদ মুক্ত, একই গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে ওমর ফারুক ও খুলনার দৌলতপুরের পশ্চিম পালপাড়া গ্রামের রিয়াজ আলীর ছেলে জামসেদ আলী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here