আমি প্রস্তুত, আপনি ?

0
175

শিহাব শাহীন: ২০০৬ সালে যখন ভোটের জন্য কাজ শুরু করি তখন জেনেছিলাম বাঘা আওয়ামী লীগের কোন প্রোগ্রাম হয়না, এমনকি ১৫ই আগস্টও না! চারঘাটে কেউ বলতে পারেনা কে কমিটিতে আছে আর কে নেই। নেতা তার প্রয়োজন অনুযায়ী পকেট থেকে কাগজ বার করে একে ওকে বলেন ‘তুই কমিটিতে আছিস’। তখন সাংগঠনিক কাজগুলো যুবলীগকে দিয়ে করার চেস্টা করেছি।

আমার প্রথম সংকল্প ছিলো দলকে গতিশীল করা। সহজ কাজ ছিলোনা সেটা। বড় নেতাদের বলে অনেক কষ্টে এডহক কমিটি করে দেয়া হয়েছিলো। তারপর প্রতিটি ওয়ার্ড এবং ইউনিয়নে কাউন্সিল করে কমিটি করা হয়েছে। আমার বিরোধীতা করলেও কোথাও ‘পকেট কমিটি’ করতে কখনও কাউকে উতসাহীত করিনি ।

২০১৪ সালের ভোটের পরে নৌকার বিরুদ্ধে ভোট করা রায়হান ভাইকে সাথে করে নিয়ে কাউন্সিল করে কমিটি করা হয়েছে। নিজের হাতে নাম লিখে বাঘা ও চারঘাটে যারা নৌকার ভোট করেননি তাদেরকেও তাদের অতীতের ত্যাগের কারনে উপজেলা কমিটি গুলোতে গুরুত্বপূর্ণ পদ দেয়া হয়েছে। অন্যদল থেকে কিছু মানুষ আওয়ামী লীগে যোগদান করলেও কোথাও তাদের কোন সাংগঠনিক পদ দেয়া হয়নি।

রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব এবং এলাকার শত শত উন্নয়নের পাশাপাশি দলকে গতিশীল করার জন্য ব্যক্তিস্বার্থের উর্ধ্বে উঠে কাজ করে যাচ্ছি।

কিছু বিরোধিতার পরেও এগুলো সফল হয়েছে কোন স্বার্থ ছাড়া যারা দল করেন তাদের জন্য।

রাজনীতির পথ কখনোই সহজ নয়, আমার জন্যও নয়। যারা আমাকে গত ১০-১২ বছর ধরে কাছ থেকে দেখেছেন তারা ভালো বুঝবেন আমার অবদান এবং ত্যাগ কতটুকু। এতকিছুর পরও আমি জানি এবং বুঝি সামনে আরও ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। কিন্তু এইটুকু শুধু বলতে পারি ব্যক্তিস্বার্থে রাজনীতি করা ত্যাগবিহীন ত্যাগী নেতাদের চেয়ে আমার ত্যাগ কম নয়।

চারঘাট-বাঘায় নৌকার এবং জননেত্রীর বিজয়কে নিশ্চিত করতে সামনের সব বাধা মোকাবিলা করতে আমি প্রস্তুত। আপনি ?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here