পিল খুব বেশী খাচ্ছেন না তো ?

0
326

অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ এড়াতে অধিকাংশ নারী জন্মবিরতিকরণ পিল ব্যবহার করেন। দাবি করা হয়, এসব পিল ৯৯.৭ শতাংশ নারীকে অনিচ্ছাকৃত গর্ভধারণ থেকে বাঁচায়।

সাধারণত পিরিয়ডের প্রথম দিন থেকে পঞ্চম দিনের মধ্যে যে কোনও দিন পিল খাওয়া শুরু করা যেতে পারে। প্রতিদিন রাত্রে খাবার খাওয়ার পর নির্দিষ্ট পিলটি খেতে হবে। পর পর ২১ দিন খেতে হবে। তারপর এক সপ্তাহ বন্ধ রেখে আবার নতুন প্যাকেট শুরু করতে হবে।

কোন একদিন ভুলে গেলে পরদিন দুটো পিল খেতে হবে। বর্তমানে বাজারে ২১ প্লাস ৭ ও ২৪ প্লাস ৪টি পিলেরও প্যাকেট পাওয়া যায়৷ এর সুবিধা হচ্ছে মনে রাখার বা ভুলে যাওয়ার কোন ব্যাপর থাকে না।

২৮ দিন পর পর নতুন প্যাকেট শুরু করলেই হল৷  বাচ্চা নিতে ইচ্ছুক নারীদের ক্ষেত্রে ৩-৪ মাস আগে থেকে পিল খাওয়া বন্ধ করে দিতে হয়। তবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে কোন ধরনের পিল খাওয়া উচিত তা ঠিক করে নেয়া ভালো। তাহলে নানা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এড়ানো যায়।

জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতির ব্যবহার নিয়ে আমাদের সমাজে কিছু ভুল ধারণা আছে। অনেকের ধারণা দীর্ঘদিন জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি অনুস্মরণ করলে পরবর্তীতে সন্তান নিতে চাইলেও গর্ভধারণ হয় না। পিল কিংবা কনডমের ব্যবহার-দুটির ক্ষেত্রেই এমনটি হয় বলে অনেকে মনে করেন।

আমাদেরকে এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। যদি সে ডিটারমাইন্ড হয় যে, আমি দু`বছর সন্তান নেব না, তাহলে তাকে অবশ্যই জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি মানতে হবে। যদি নবদম্পতি হয়, তাহলে তাদেরকে আমরা `পিল` খেতে বা `কনডম` ব্যবহারে উৎসাহী করে থাকি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here